হঠাৎই ঋণমুক্তির সুযোগ। পড়াশোনার খাতে নেওয়া ঋণ থেকে ছাড় পেয়ে যাচ্ছেন জর্জিয়ার ৩৯৬ জন স্নাতক পড়ুয়া। সৌজন্যে আফ্রিকান-বংশোদ্ভূত মার্কিন কোটিপতি রবার্ট স্মিথ।

আট প্রজন্ম ধরে আমেরিকার বাসিন্দা এই কৃষ্ণাঙ্গ শিল্পপতি। মার্কিন মুলুকের প্রতি সেই ‘ঋণ’ মেটাতেই পড়ুয়াদের ঋণ শুধতে চান স্মিথ। রবিবার আটলান্টার মোরহাউস কলেজের তরফে সাম্মানিক ডক্টরেট দেওয়া হল স্মিথকে। সেই অনুষ্ঠানেই এই ঘোষণা করেছেন তিনি।

আগেই পড়ুয়াদের বৃত্তি ও কলেজের নতুন ক্যাম্পাসের জন্য অনুদানের কথা ঘোষণা করেন স্মিথ। তার পরেই আসে পড়ুয়াদের ঋণ মেটানোর প্রতিশ্রুতি। উল্লাসে ফেটে পড়েন স্নাতক পড়ুয়ারা। স্মিথের এই উপহারকে মোরহাউস কলেজের অধ্যক্ষ ডেভিড এ টমাস ‘স্বাধীনতার উপহার’ আখ্যা দিয়ে জানান, পড়ুয়াদের নিজেদের স্বপ্নের পথে হাঁটতে সাহায্য করবে এই উপহার।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পড়াশোনা শেষ করে একটি ইনভেস্টমেন্ট ব্যাঙ্কিং সংস্থায় বিনিয়োগ শুরু করেন স্মিথ। ২০০০ সালে ‘ভিস্তা ইকুইটি’ নামে একটি সংস্থা শুরু করেন। যার হাত ধরে  সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছন কৃষ্ণাঙ্গ এই লগ্নিকারী। সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে পড়াশোনার খরচ মারাত্মক ভাবে বেড়ে গিয়েছে। ২০১৯ সালের হিসেব অনুযায়ী,  আমেরিকায় পড়াশোনার খাতে মোট ঋণ দেড় লক্ষ কোটি ডলারেরও বেশি।