সরকার বিরোধী বিক্ষোভের জেরে সোমবার ফের অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয় চিলিতে। এই নিয়ে তৃতীয় সপ্তাহে পড়ল এই সরকার-বিরোধী প্রতিবাদ। দেশের আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতি এবং বেড়ে চলা মূল্যবৃদ্ধি-সহ আরও বেশ কয়েকটি বিষয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিতে এ দিন প্লাজ়া ডি ইতালিয়ায় জড়ো হয় হাজার হাজার মানুষ। মিছিল করে সান্তিয়াগোর ডাউনটাউনে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশ তাদের আটকাতে গেলে জনতা-পুলিশের খণ্ডযুদ্ধ বাধে। অভিযোগ, পুলিশি হেনস্থার প্রতিবাদে বেশ কয়েকটি দোকানেপাটে লুটপাট চালায় বিক্ষুব্ধ জনতা। অশান্তি যখন চরমে তখন হঠাৎই ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে ওই অঞ্চল। কম্পনের মাত্রা ছিল ৬। হতাহতের অবশ্য খবর নেই । 

পরিস্থিতি এত উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে তা সামাল দিতে জলকামান এবং কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে পুলিশ। তাতেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের ক্যামেরায় ধরা পড়েছে সে ছবি। এক পুলিশ অফিসারের মুখে ককটেল বোমা ছুড়ে মারতেও দেখা যায় টিভির পর্দায়। রাত নামার সঙ্গে সঙ্গে বাসন এবং গাড়ির হর্ন বাজিয়ে প্রতিবাদ দেখায় জনতা। ভিনা ডেল মার এবং ভালপারাইসোর মতো বেশ কিছু শহরে লুট এবং সরকারি সম্পত্তি নষ্টের অভিযোগ উঠেছে। এর জেরে দেশের পাতালরেল ব্যবস্থা প্রায় পুরো নষ্ট হয়ে গিয়েছে বলে দাবি। জীবনযাপনের খরচ বৃদ্ধি, ধনী-গরিবদের চরম আর্থিক বৈষম্য, পেনশনের অর্থ হ্রাস এবং চিকিৎসার খরচ বৃদ্ধির মতো বেশ কিছু বিষয়ে প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনিয়েরার পদত্যাগের দাবিতে ২০ অক্টোবর থেকে বিক্ষোভ চলছে।