আইনি মতে বিয়ে হলেও, কনে সাজা হয়নি। মৃত্যুর পর সেই মনোকামনা পূরণ হল এক মহিলার। শেষকৃত্যের আগে শাস্ত্র মেনে স্ত্রীর মৃতদেহের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন ওই মহিলার স্বামী। সম্প্রতি পূর্ব চিনের ডালিয়াং অঞ্চলে এমনই ঘটনা ঘটেছে, যা আলোড়ন ফেলে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

চিনা সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই তরুণীর নাম ইয়াং লু। স্তন ক্যানসারে ভুগছিলেন তিনি। গত সাড়ে পাঁচ বছর ধরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছিলেন। চিকিৎসাধীন থাকাকালীন গত ৬ অক্টোবর কোমায় চলে যান। তার এক সপ্তাহ পরেই মারা যান। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৫ বছর।

সে দেশের রীতি অনুযায়ী, মৃত্যুর পর সাত দিন স্ত্রীর মৃতদেহের সঙ্গেই ছিলেন শু শিনান। তার পর শেষকৃত্যের আগে সেই মৃতদেহকেই বিয়ে করেন তিনি।

আরও পড়ুন: বাগদাদিকে ধরতে মার্কিন অভিযান, আত্মঘাতী বোমায় নিজেকে ওড়াল আইএস শীর্ষ নেতা!​

ইয়াং লু এবং শু শিনান একে অপেরর সহপাঠী ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ২০০৭ সালে একে অপরের প্রেমে পড়েন তাঁরা। ২০১৩-য় রেজিস্ট্রি বিয়ে সারেন। রেজিস্ট্রির পরে ঘটা করে বিয়ের শখ ছিল লু-র। কিন্তু রেজিস্ট্রির তিন মাস পরেই ক্যানসারে ধরা পড়ে তাঁর। শুরু হয় কেমোথেরাপি। ২০১৭-য় সাময়িক ভাবে সেরেও ওঠেন তিনি। কিন্তু কিছু দিন পর ফের ক্যানসার ফিরে আসে তাঁর শরীরে।

আরও পড়ুন: সামনেই অযোধ্যা রায়, রাজনৈতিক দলগুলির দায়িত্ব স্মরণ করালেন প্রধানমন্ত্রী​

সেই থেকে এতদিন ধরে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন লু। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। তাই বলে স্ত্রী-র কনে সাজার ইচ্ছা অপূর্ণ থেকে যাবে, তা মেনে নিতে পারেননি শু শিনান। তাই শেষকৃত্যের আগে কফিনবন্দি স্ত্রীকে সাদা গাউন পরিয়ে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কিছু বলেননি শু শিনান। তবে স্ত্রীর মনোকামনা পূরণ করতেই তিনি এমন কাজ করেছেন বলে নিকট আত্মীয়দের তিনি এমনটাই জানিয়েছেন বলে খবর।