• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ট্রাম্প-ঘনিষ্ঠের কারাদণ্ড

Roger Stone
রজার স্টোন।—ছবি এএফপি।

মার্কিন ভোটে রুশ হস্তক্ষেপ সংক্রান্ত তদন্তে মিথ্যে সাক্ষ্য, বিচারে বাধা দেওয়া এবং সাক্ষীদের প্রভাবিত করার দায়ে গত বছর নভেম্বরেই দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল তাঁকে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দীর্ঘদিনের সঙ্গী তথা উপদেষ্টা সেই রজার স্টোনকে গত কাল সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ওয়াশিংটনের এক আদালত। ২০ হাজার ডলার জরিমানার পাশাপাশি ২৫০ ঘণ্টার ‘কমিউনিটি সার্ভিস’ করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে বছর সাতষট্টির স্টোনকে।

২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ নিয়ে তদন্ত শুরু হওয়া ইস্তক একে বিরোধী ডেমোক্র্যাটদের ‘চক্রান্ত’ বলে সুর চড়িয়ে আসছেন ট্রাম্প। স্টোন দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরেও ‘অন্যায় হচ্ছে’ বলে একাধিক বার মন্তব্য করেছিলেন তিনি। কাল স্টোনের সাজা ঘোষণার পরে অবশ্য লাস ভেগাসের নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘‘স্টোন অত্যন্ত ভাল মানুষ। আশা করব, আইন আইনের পথে চলবে। এক দিন স্টোন মুক্তি পাবেনই।’’ 

ভোটের আগে রিপাবলিকানদের সঙ্গে রাশিয়ার সন্দেহজনক আঁতাঁত নিয়ে শুরু হওয়া রবার্ট মুলারের বিচার বিভাগীয় তদন্তে ট্রাম্পের ষষ্ঠ উপদেষ্টা হিসেবে সাজা পেলেন স্টোন। ডেমোক্র্যাট নেত্রী হিলারি ক্লিন্টনের একাধিক মেল-ফাঁসের পিছনে উইকিলিকসের সঙ্গে নিজের যোগসাজশের বিষয়টি কংগ্রেসের গোয়েন্দা বিষয়ক কমিটির সামনে বেমালুপ চেপে যাওয়ার জন্যই তাঁকে সাজা দেওয়া হল বলে জানিয়েছেন বিচারক অ্যামি বারম্যান জ্যাকসন। কাল প্রায় আড়াই ঘণ্টা শুনানি শেষে তিনি বলেন, ‘‘কারও পক্ষ নেওয়ার জন্য নয়, প্রেসিডেন্টের কাজকর্ম ধামাচাপা দেওয়ার জন্যই কারাদণ্ড দেওয়া হল স্টোনকে।’’ নভেম্বরে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পরে মার্কিন বিচার বিভাগের কৌঁসুলিরা আবেদন করেছিলেন, স্টোনকে ৭ থেকে ৯ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড দেওয়া হোক। ওয়াশিংটনের ডিস্ট্রিক্ট জাজ জ্যাকসন যদিও তা অনেকটাই কমিয়ে দিয়েছেন বলে অসন্তুষ্ট ডেমোক্র্যাটদের একাংশ। বিচারক জানিয়েছেন, কারাবাসের পরে আরও দু’বছর নজরবন্দি থাকতে হবে স্টোনকে। যদিও ফেডারেল কোর্ট সাজার নির্দেশ দিলেও পাল্টা আর্জি জানানোর সুযোগ থাকছে তাঁর সামনে। ইতিমধ্যেই ট্রাম্প শিবিরের একটা বড় অংশ থেকে প্রেসিডেন্টের উদ্দেশে আর্জি আসতে শুরু করেছে, ‘‘অন্যায়, অবিচারের জন্য স্টোনকে যেন একটা মুহূর্তও জেলে কাটাতে না হয়।’’

এর পাল্টা ডেমোক্র্যাটরা জানাচ্ছেন, প্রেসিডেন্টের মর্জিমতো স্টোনকে তাঁরা কোনও ভাবেই বেকসুর খালাস হতে দেবেন না। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন