• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চট্টগ্রামে ধরা পড়ল জাল কয়েক কোটি ভারতীয় টাকা

1

কয়েক কোটি জাল টাকা ধরা পড়ল চট্টগ্রামে। সাগরপথে অবৈধ ভাবে আসা এ ধরনের জাল মুদ্রা উদ্ধারের ঘটনা বাংলাদেশে এই প্রথম বলে দাবি করেছে সে দেশের শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। রবিবার রাতে দুবাই থেকে আসা একটি কনটেইনারে ভারতীয় টাকা ভর্তি চারটি কার্টন বাজেয়াপ্ত করেছে চট্টগামের শুল্ক দফতর।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছে, শহীদুজ্জামান নামের এক ব্যক্তি কনটেইনারটি চট্টগ্রামে আনেন। তাঁর আদি বাড়ি চট্টগ্রামে হলেও তিনি দুবাইপ্রবাসী। ওই চারটি কার্টনে ব্যবহারের উপযোগী জিনিসপত্র নিয়ে আসার কথা ছিল। কিন্তু, সেই জায়গায় কী ভাবে কয়েক কোটি মূল্যের ভারতীয় জাল টাকা এল, তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ওই দিন রাতে বন্দরের ৮ নম্বর জেটিতে জিনিসপত্র খালাসের সময় ২০ ফুট লম্বা ওই কনটেইনারটি বাজেয়াপ্ত করা হয়। কনটেইনারটির ভেতরে থাকা ১৬৫টি কার্টনের মধ্যে চারটি খুলে সবগুলিতেই এক হাজার ও পাঁচশো টাকার জাল নোট পাওয়া যায়। গোয়েন্দাদের ধারণা, বাকি কার্টনগুলোতেও জাল নোট রয়েছে। ‘এমভি প্রসপার’ নামের জাহাজটি দুবাই থেকে কলম্বো হয়ে চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছয় গত ১১ সেপ্টেম্বর। এই জাহাজের একটি কনটেইনারে ভারতীয় নোটের কার্টনগুলি ছিল।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের ডিরেক্টর মঈনুল খান জানিয়েছেন, বাজেয়াপ্ত করা নোট ভারতীয় জাল টাকা। এর পেছনে কোনও চক্র কাজ করছে বলেও তাঁর ধারণা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান জানান, কনটেইনারটিতে ১৬৫টি কার্টন রয়েছে। এর মধ্যে চারটি কার্টনে ভারতীয় টাকা পাওয়া গিয়েছে। তাঁর কথায়, ‘‘জলবন্দর দিয়ে বিদেশি মুদ্রা আনার ঘটনা এই প্রথম। আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ ব্যাপারে সজাগ রয়েছে। কে, কি উদ্দেশ্যে এই মুদ্রা এনেছে তা তদন্ত করে দেখা হবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন