ভারতের পাঠানো চন্দ্রযান খুঁজতে আগ্রহ দেখালেন হলিউড তারকা ব্র্যাড পিটও। সম্প্রতি তাঁর কল্পবিজ্ঞান ভিত্তিক মহাকাশ-সংক্রান্ত ছবি ‘অ্যাড অ্যাস্ট্রা’-র প্রচারে ব্র্যাড পৌঁছে গিয়েছিলেন ওয়াশিংটনে নাসার সদর দফতরে। সেখান থেকে আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রে ফোন করে তিনি কথা বলেছেন মার্কিন মহাকাশচারী নিক হেগের সঙ্গে। সেই সময়েই ব্র্যাড জানতে চান, চন্দ্রযানের কথা।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রে জীবনটা ঠিক কী রকম, জানতে চেয়েছেন ‘অ্যাড অ্যাস্ট্রা’-র অভিনেতা-মহাকাশচারী। হেগ বলেছেন, সকাল সাড়ে সাতটা থেকে সন্ধে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত কাজ করেন তাঁরা। কথায় কথায় তখনই পিট জানতে চান, ‘‘গত সপ্তাহে আমি জেট প্রোপালসন ল্যাবরেটরিতে গিয়েছিলাম। সে দিনই ভারতের চাঁদে নামার কথা। আমেরিকা তাতে সাহায্য করছে শুনেছিলাম। আপনি যেখানে আছেন, সেখান থেকে কি কিছু দেখেছেন?’’ 

পিটের প্রশ্নের উত্তরে হেগ বলেন, ‘‘না। দুর্ভাগ্যবশত আমিও বাকিদের সঙ্গে খবরের রিপোর্ট থেকেই যা জানার জেনেছি।’’ আন্তর্জাতিক মহাকাশ কেন্দ্রে হেগ এখন রয়েছেন আরও দুই মার্কিন মহাকাশচারী, দুই রুশ ও এক ইটালীয় মহাকাশচারীর সঙ্গে। পিট-হেগের এই ২০ মিনিটের ওই আলোচনা নাসার টিভিতে সম্প্রচারও করা হয়েছিল। কথাবার্তার শেষ দিকে হাল্কা চালে পিট বলে ওঠেন মহাকাশচারী অভিনেতা হিসেবে কে বেশি বিশ্বাসযোগ্য, তিনি না জর্জ ক্লুনি (যিনি ২০১৩ সালের ছবি ‘গ্র্যাভিটি’-তে অভিনয় করেছিলেন)? হেগ সঙ্গে সঙ্গে বলে দেন, ‘‘আপনিই, আর কে!’’