রবার বুলেট, কাঁদানে গ্যাস ছিলই। এ বার গুলিও চলল। আজ চিন সীমান্ত লাগোয়া সুয়েন ওয়ান জেলায় হংকংয়ের দাঙ্গা দমনকারী পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছেন বছর আঠারোর এক ছাত্র। তাঁর নাম প্রকাশ করা হয়নি। কয়েকটি সংবাদমাধ্যম প্রথমে জানিয়েছিল, ওই ছাত্রের বুকে গুলি লেগেছে, অবস্থা আশঙ্কাজনক। পরে তাঁরই এক বন্ধু একটি ব্রিটিশ চ্যানেলকে জানান, তিনি বিপন্মুক্ত। চিকিৎসা চলছে।

আজ ছিল চিনের প্রতিষ্ঠা দিবস। সেখানকার কমিউনিস্ট সরকারের ৭০তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে চিন জুড়ে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। হংকং প্রশাসনও ব্যতিক্রম ছিল না। এই উদ্‌যাপন পণ্ড করতে আগে থেকেই ডাক দিয়েছিলেন হংকংয়ের গণতন্ত্রকামী নেতারা। সকাল থেকে সেইমতো প্রস্তুত ছিল ক্যারি ল্যামের প্রশাসনও। ল্যাম নিজে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বেজিং গিয়েছেন। তাঁর পুলিশ বাহিনীর সঙ্গে দুপুর থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে বিক্ষোভকারীদের। হংকং শহর-সহ মোট ছ’টি জেলায় ছড়িয়ে পড়ে প্রতিবাদ। হংকং নিয়ে আজ কড়া অবস্থান নিয়েছেন চিনা প্রেসিডেন্ট শি চিনফিং। কালই তাঁর মুখে ‘এক রাষ্ট্র দুই নীতির’ কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু আজ প্রতিষ্ঠা দিবসে হংকংয়ের নাম না করে শি বলেছেন, ‘‘আমাদের মাতৃভূমিকে দ্বিখণ্ডিত করার কেউ চেষ্টা করলে তা বরদাস্ত করা হবে না।’’