• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘কমলা হ্যারিস জিতলে আমেরিকার অপমান হবে’, কটাক্ষ ট্রাম্পের

Donald Trump Kamala Harris
কমলা হ্যারিসকে ফের আক্রমণ ডোনাল্ড ট্রাম্পের। —ফাইল চিত্র

নিশানায় জো বাইডেন আছেনই। কিন্তু তাঁর ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিসকেও সমান তালে আক্রমণ করে চলেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগে বলেছেন, কমলা হ্যারিস তাঁর মেয়ে ইভাঙ্কার চেয়েও অযোগ্য। এ বার কমলাকে কার্যত ‘আমেরিকার অপমান’ বলে কটাক্ষ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। নর্থ ক্যারোলিনার ওই সভাতেই বাইডেনকেও নিশানা করেছেন ট্রাম্প। বলেছেন, বাইডেন জিতলে চিন জিতবে।

মার্কিন প্রবাসী ভারতীয়দের মন পেতে ভারতীয় বংশোদ্ভূত কমলা হ্যারিসকেই ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মনোনীত করেছেন ডেমোক্র্যাটরা। তার পর থেকেই ট্রাম্পের আক্রমণের তালিকায় বাইডেনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন কমলা হ্যারিস। মঙ্গলবার নর্থ ক্যারোলিনার সভায় ট্রাম্প বলেন, ‘‘মানুষ ওঁকে (কমলা হ্যারিসকে) পছন্দ করেন না। কেউ পছন্দ করেন না। উনি কখনও আমেরিকার প্রথম মহিলা ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না।’’ এর পরেই তিনি বলেন, উনি নির্বাচিত হলে সেটা হবে ‘আমেরিকার অপমান’।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এক সময় কমলা হ্যারিস ছিলেন জো বাইডেনের প্রতিদ্বন্দ্বী। একাধিক সভায় বাইডেনকে কড়া ভাষায় আক্রমণও করেছেন তিনি। তবে জনপ্রিয়তা ও সমর্থনের দৌড়ে পিছিয়ে পড়ায় গত বছর নির্বাচন থেকে তিনি সরে দাঁড়ান। কিন্তু সেই কমলা হ্যারিসকেই ‘রানিং মেট’ প্রার্থী করেছেন জো বাইডেন। সেই প্রসঙ্গ তুলে ট্রাম্পের কটাক্ষ, ‘‘উনি তো দৌড় থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু এটা খুব আগ্রহের বিষয় যে তাঁকেই ওঁরা পছন্দ করেছে। কিন্তু তার জন্য ক্যালিফোর্নিয়াতে তো জিততে হবে। এমন একজনকে তুলে ধরা উচিত, যিনি অন্তত ভোটে জিততে পারবেন।’’

আরও পড়ুন: কঙ্গনার অফিস ভাঙায় স্থগিতাদেশ বম্বে হাইকোর্টের

আরও পড়ুন: স্বেচ্ছাসেবকের অজানা অসুখ, স্থগিত অক্সফোর্ডের কোভিড টিকার ট্রায়াল

অন্য দিকে বাইডেনকে আক্রমণ করতে গিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে চিন-প্রীতির অভিযোগ তুলেছেন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘‘একটা কথা আপনাদের স্মরণ করিয়ে দিই— বাইডেন জিতলে চিন জিতবে। এটা জলের মতো পরিষ্কার। আমরা ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অর্থনীতি হিসেবে গড়ে তুলেছি আমেরিকাকে। কিন্তু চিনা রোগ ঢুকে পড়ায় সেই কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছিলাম। তবে এখন আবার খুলে দিয়েছি।’’ চিনা রোগ বলতে করোনাভাইরাসের কথা বোঝাতে চেয়েছেন বলে পর্যবেক্ষকদের মত। মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘‘এখন এটা স্পষ্ট, কেন চিন ও দাঙ্গাকারীরা বাইডেনকে জেতাতে মরিয়া। কারণ ওরা জানে, ওঁর (বাইডেনের) নীতি আমেরিকার পতন ডেকে আনবে।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন