জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে চাপ বাড়াতে এ বার ভারতীয় বিমানের জন্য নিজেদের আকাশসীমা সম্পূর্ণ বন্ধ রাখার পরিকল্পনা করছে পাকিস্তান। সেই সঙ্গে আফগানিস্তানের সঙ্গে ভারতের বাণিজ্যের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া নিয়েও আলাপ আলোচনা চলছে। মঙ্গলবার টুইটারে এমনই জানালেন সে দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন। তিনি জানান, বিষয়টি পর্যালোচনা করে দেখছে ইমরান খান সরকার। এ নিয়ে মন্ত্রিসভায় একদফা আলোচনাও হয়েছে।

এ দিন  টুইটারে ফাওয়াদ হুসেন লেখেন, ‘ভারতীয় বিমানের জন্য আকাশসীমা সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছেন ইমরান খান। পাকিস্তানের উপর দিয়ে আফগানিস্তানে বাণিজ্য করে ভারত। সেই রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া নিয়েও মন্ত্রিসভায় একদফা আলোচনা হয়েছে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আইনি দিকগুলি নিয়ে  কথাবার্তা চলছে। শুরুটা মোদী করেছেন। শেষ করব আমরা।’

রাষ্ট্রপুঞ্জ এবং একাধিক দেশ মুখ ফিরিয়ে নিলেও জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক মহলের সমর্থন জোগাড়ের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান। এমনকি এ নিয়ে আন্তর্জাতিক ন্যায় আদালতে যাওয়ার প্রস্তুতিও নিচ্ছে তারা। তার মধ্যেই সোমবার দেশবাসীর উদ্দেশে বক্তৃতা করেন ইমরান। নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে কাশ্মীরে মানবতা লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলেন তিনি। এর শেষ দেখে ছাড়বেন বলে হুঁশিয়ারিও দেন। তার পরই এ দিন আকাশসীমা বন্ধ করার হুঁশিয়ারি দিলেন তাঁর মন্ত্রী।

আরও পড়ুন: নিয়ন্ত্রণরেখায় ১০০ কম্যান্ডো মোতায়েন করল পাকিস্তান, কড়া নজর রাখছে ভারত​

আরও পড়ুন: কেন্দ্রীয় শর্তে না, বন্দিদশার মেয়াদ বাড়ল মেহবুবা এবং ওমরের​

এর আগে, গত ফেব্রুয়ারি মাসে পুলওয়ামা হামলার জবাবে পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং বালাকোটে অভিযান চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা। সেই সময়েও ভারতীয় বিমানের জন্য আকাশসীমা সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান সরকার। তাতে অবশ্য তাদেরই ক্ষতি হয়েছিল। একটানা ১৪০ দিন আকাশসীমা বন্ধ রাখায় প্রায় ১০ কোটি ডলার লোকসান হয় তাদের, ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৬৮৫ কোটি টাকা।