মার্কিন মুলুকে ফের বন্দুকবাজের হামলায় প্রাণ হারালেন এক ভারতীয়। তাঁর বাড়ি অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুর জেলায়। ওই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে আরও দু’জনের। পরে পুলিশের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে নিহত হয়েছে বন্দুকবাজও। গত জুলাইয়ে বন্দুকবাজের হামলায় মিসৌরি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ভারতীয় ছাত্রের মৃত্যু হয়। তাঁর বাড়ি ছিল তেলঙ্গানায়।

পুলিশ জানাচ্ছে, আমেরিকার সিনসিন্নাটি শহরের লাগোয়া ফাউন্টেন স্কোয়্যার এলাকায় ওই ঘটনায় মৃত ভারতীয়ের নাম পৃথ্বীরাজ কান্দেপি। তেলুগু অ্যাসোসিয়েশন অফ নর্থ আমেরিকা (টানা)-র তরফে জানানো হয়েছে, পৃথ্বীরাজ ছিলেন সিনসিন্নাটিতে ফিফ্‌থ থার্ড ব্যাঙ্কের সদর দফতরের কর্মচারী।

নিউইয়র্কে ভারতের কনসাল জেনারেল সন্দীপ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, দূতাবাস নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেছে পুলিশ, পৃথ্বীরাজের পরিবার ও নিউইয়র্কে থাকা তেলুগু সম্প্রদায়ের সংগঠনগুলির সঙ্গে। পৃথ্বীরাজের দেহ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতে তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সিনসিন্নাটি পুলিশ সূত্রে খবর, বন্দুকবাজের হামলায় আর যে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের নাম লুইস ফিলিপ ক্যালডেরন (৪৮) ও রিচার্ড নিউকামার (৬৪)। ২৯ বছর বয়সী বন্দুকবাজ ওমর এনরিকে সান্তা পেরেজের বাড়ি ওহায়োর নর্থ বেন্ড শহরে।

আরও পড়ুন- মহাকাশ থেকে নজরদারি! চিনকে রুখতে ভারত-মার্কিন ঐতিহাসিক চুক্তি​

আরও পড়ুন- আমেরিকার চাপ কাটানোই চাপ দিল্লির​

সিনসিন্নাটির পুলিশ প্রধান এলিয়ট আইজ্যাক জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় সকাল সওয়া ন’টা নাগাদ ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছে থেকে প্রথম তাঁরা ওই বন্দুকবাজের হামলার খবর পান। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। বন্দুকবাজের সঙ্গে শুরু হয় গুলিযুদ্ধ। তাতেই মৃত্যু হয় বন্দুকবাজ পেরেজের। তার কাছ থেকে একটি পিস্তল ও ২০০ রাউন্ড গুলিগোলা উদ্ধার করা হয়েছে।