জঙ্গি হামলায় বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কার মাটিতে দাঁড়িয়ে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। জানালেন, সন্ত্রাস যে দু’দেশের পক্ষেই বিপজ্জনক তা নিয়ে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট মৈত্রীপালা সিরিসেনার সঙ্গে তিনি এক মত।

মলদ্বীপেও সন্ত্রাস নিয়ে সরব হয়েছিলেন মোদী। আজ শ্রীলঙ্কায় জঙ্গি হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত সেন্ট অ্যান্টনি’জ চার্চে যান তিনি। সেখানে হামলায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের পরে বলেন, ‘‘আমি নিশ্চিত শ্রীলঙ্কা ফের ঘুরে দাঁড়াবে। এমন কাপুরুষের মতো হামলা শ্রীলঙ্কার মনোবল নষ্ট করতে পারবে না। ভারত শ্রীলঙ্কার পাশে আছে।’’

এর পরে প্রেসিডেন্ট সিরিসেনা, প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমসিংহ, বিরোধী নেতা মাহিন্দা রাজাপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন মোদী। দেখা করেন তামিলদের রাজনৈতিক দল ‘তামিল ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স’-এর এক প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও। মোদীকে এক বৌদ্ধমূর্তি উপহার দিয়েছেন সিরিসেনা। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, সমাধিস্থ বুদ্ধের ওই মূর্তি শ্রীলঙ্কার এক প্রাচীন মূর্তির প্রতিরূপ। কলম্বোর প্রেসিডেন্ট হাউসের বাগানে এক অনুষ্ঠানে অশোক গাছের একটি চারাও পুঁতেছেন মোদী।

এ দিনই অন্য এক অনুষ্ঠানে মুসলিম মৌলবাদ সম্পর্কে সতর্ক করেছেন সিরিসেনা। এক সময়ে এলটিটিই-র গড় হিসেবে পরিচিত মুল্লাইটিভুতে তিনি বলেন, ‘‘শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক ও ধর্মীয় নেতারা এখন বিভক্ত। কিন্তু দেশ বিভক্ত হয়ে গেলে তার মূল্য দিতে হবে। মুসলিম প্রভাকরনের আবির্ভাব যে কোনও মূল্যে রুখতে হবে।’’ ভেলুপিল্লাই প্রভাকরনের নেতৃত্বাধীন এলটিটিই-র জঙ্গি কার্যকলাপের ফলে দীর্ঘস্থায়ী গৃহযুদ্ধের মুখে পড়তে হয়েছিল শ্রীলঙ্কাকে।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও। সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।