মুখোমুখি বসুন। একে অন্যের হাতে হাত মেলান। আর তার পর আলোচনায় মিটিয়ে ফেলুন কাশ্মীর সমস্যা। কোনও তৃতীয় পক্ষ নয়, ভারত ও পাকিস্তানের দুই প্রধানমন্ত্রীকে এই অনুরোধ নোবেল শান্তি পুরস্কারজয়ী পাক নাগরিক মালালা ইউসফজাইয়ের। তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বৃহস্পতিবার এই অনুরোধ জানিয়েছেন মালালা। ‘#সেনোটুওয়ার’ হ্যাশট্যাগ দিয়ে। টুইটারে তাঁর অনুগামীর সংখ্যা ১৪ লক্ষ।

তাঁর টুইটে মালালা লিখেছেন, ‘‘এক জন নোবেল পুরস্কারজয়ী হিসেবে, রাষ্ট্রপুঞ্জের শান্তি আন্দোলনের এক জন বার্তাবাহক হিসেবে, এক জন পাক নাগরিক ও ছাত্রী হিসেবে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে এই উত্তেজক পরিস্থিতি তৈরি হওয়া আর তা বেড়ে যাওয়ায় আমি গভীর ভাবে উদ্বিগ্ন। শঙ্কিত এই দু’টি দেশের সীমান্তে থাকা মানুষের জন্য।’’

মালালার কথায়, ‘‘যাঁরা যুদ্ধের ভয়াবহতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল, তাঁরা খুব ভাল ভাবেই জানেন, পাল্টা আক্রমণ আর প্রতিশোধ কখনওই জবাব হতে পারে না। এটা এক বার শুরু হলে আর শেষ হয় না। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে অনেক যুদ্ধ চলছে। তার জন্য ভুগতে হচ্ছে লক্ষ লক্ষ মানুষকে। এখনও আমরা ওঁদের সমস্যা দূর করতে পারিনি। এই পরিস্থিতিতে আরও একটা যুদ্ধ চাই না।’’

আরও পড়ুন- কালই মুক্তি পাচ্ছেন অভিনন্দন, পাক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে ঘোষণা ইমরান খানের​

আরও পড়ুন- ‘অভিনন্দনকে এখনই ফিরিয়ে দিন’, ইমরানকে বার্তা ভুট্টোর নাতনি ফতিমার​

দীর্ঘ টুইটে মালালা লিখেছেন, ‘‘আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে বলব, আপনারা মুখোমুখি বসুন। হাতে হাত মেলান। তার পর আলোচনায় মিটিয়ে ফেলুন দীর্ঘ দিনের কাশ্মীর সমস্যা। দেখিয়ে দিন, এই কঠিন সময়েও কী ভাবে বলিষ্ঠ ভাবে নেতৃত্ব দেওয়া যায়। রুখে দিন জীবন ও সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি।’’

মালালার মতে, বহু সমস্যা রয়েছে ভারত ও পাকিস্তানের। এমন নয় যে, সেগুলি কোনও একটি দেশের সমস্যা। দু’টি দেশই ভুগছে সন্ত্রাসবাদ, দারিদ্র্য, অশিক্ষা ও নাগরিকদের বেহাল স্বাস্থ্য ও অপুষ্টির সমস্যায়। যুদ্ধের বদলে দু’টি দেশেরই উচিত ওই সমস্যাগুলি দূর করার ব্যাপারে আরও উদ্যোগী হয়ে ওঠা।