‘সন্ত্রাসের গভীর ডিএনএ’ প্রোথিত আছে পাকিস্তানে— বিদেশের মাটিতে জম্মু ও কাশ্মীর প্রসঙ্গে এমনই প্রতিক্রিয়া জানাল ভারত। প্যারিসে ইউনেস্কোর সাধারণ সম্মেলনে ভারত এ-ও বলল,  আর্থিক ভাবে কোণঠাসা দেশটি (পাকিস্তান) তার ‘খ্যাপাটে আচরণের’ (নিউরোটিক) জন্য পতনের দিকে এগিয়ে ক্রমশ ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। 

ইউনেস্কোর সম্মেলনে ভারতীয় প্রতিনিধিদের নেতৃত্বে থাকা অনন্যা আগরওয়াল বৃহস্পতিবার বলেছেন, ‘‘কট্টর মতাদর্শ থেকে শুরু করে মৌলবাদ এবং সন্ত্রাসে তার প্রকাশ, এ সব কিছুরই আঁতুড়ঘর পাকিস্তান।’’ এই সূত্রে অনন্যা বলেন, ‘‘এটা অত্যন্ত হতাশাজনক যে ইউনেস্কোর মতো মঞ্চের অপব্যবহার করে পাকিস্তান ভারতের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করছে।’’ কথা প্রসঙ্গে অনন্যা মনে করান, পাকিস্তান দুর্বল রাষ্ট্রের তালিকায় ১৪ নম্বর স্থানে ছিল গত বছর। 

সেপ্টেম্বরে রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছিলেন,  দু’টি পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে লড়াই হলে তার প্রভাব দু’দেশের সীমান্ত ছাড়িয়ে যাবে। সেই প্রসঙ্গ মনে করিয়ে অনন্যা জানান, পাক নেতারা রাষ্ট্রপুঞ্জকে ব্যবহার করে পরমাণু যুদ্ধের প্রচার চালান এবং অন্য দেশের বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরার কথা বলেন।  এর পরে অনন্যার প্রশ্ন, ‘‘আমি যদি এই সম্মেলনে বলি যে পাকিস্তানের এক প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট, জেনারেল পারভেজ মুশারফ সম্প্রতি ওসামা বিন লাদেনের মতো জঙ্গি এবং হক্কানিকে পাকিস্তানের নায়ক বলেছেন, কেউ বিশ্বাস করবে!’’ 

অনন্যার দাবি, নিজের দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানবাধিকার ধুলোয় মিশে গেলেও আন্তর্জাতিক মঞ্চে পাকিস্তান ‘নারকীয় তুলনা’ টেনে ভারতকে ক্রমাগত কলঙ্কিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তাঁর কথায়, ‘‘কোনও সদস্য-রাষ্ট্র এ ধরনের মঞ্চের অপব্যবহার যাতে করতে না পারে, আশা করি ইউনেস্কো সদস্যরা সেটা একজোট হয়ে দেখবে।’’