ওমান উপসাগরে দু’টি তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনায় ইরানকে দায়ী করলেও তাদের সঙ্গে এখনও আলোচনায় বসা নিয়ে আশাবাদী আমেরিকা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবি, পারস্য উপসাগরীয় এলাকায় প্রতিরক্ষা বাড়ানোর কথা ভাবছে পেন্টাগন। এ অবস্থায় মার্কিন চাপের মুখে ইরান এ বার আলোচনায় বসতে বাধ্য হবে। আগেও ইরানকে এক টেবিলে বসার প্রস্তাব দিয়েছিল আমেরিকা। কিন্তু তেহরান প্রতিবারই তা খারিজ করে দেয়। শুক্রবারও বিশকেকে এসসিও সম্মেলনেও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রৌহানি বলেন, ‘‘নিজেদের অর্থনৈতিক ও সামরিক শক্তিকে ব্যবহার করে গত দু’বছরে মার্কিন সরকার আন্তর্জাতিক নিয়ম লঙ্ঘন করছে। গোটা বিশ্বের পক্ষে মারাত্মক বিপজ্জনক হয়ে উঠছে ওরা।’’ ওমান উপসাগরে তেলবাহী জাহাজে হামলার ঘটনার তদন্তের জন্য চাপ দিয়েছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তোনিয়ো গুয়েতেজ়।