• শ্রাবণী বসু
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কেমব্রিজে সব ক্লাস অনলাইনে

Cambridge University
—ফাইল ছবি
আগামী শিক্ষাবর্ষে (২০২০-২১) কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসগুলির সমস্ত লেকচারই হবে অনলাইনে। কোভিড-১৯ অতিমারির প্রেক্ষিতে পারস্পরিক দূরত্ববিধি বজায় রাখাতেই এই সিদ্ধান্ত। 
 
শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের গত কাল ই-মেলে এই কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় কর্ত্রী অ্যালিস বেনটন। তিনি লিখেছেন, ‘‘মনে হচ্ছে, ২০ অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলা শিক্ষাবর্ষের গোটা সময়টা জুড়েই পারস্পরিক দূরত্ববিধি কঠোর ভাবে পালন করতে হবে। তাই মুখোমুখি কোনও ক্লাসে পড়ানো (লেকচার) হবে না।’’ 
 
তবে পারস্পরিক দূরত্ববিধি মেনেই টিউটোরিয়াল ক্লাস চলবে কেমব্রিজে। কোনও শিক্ষাবিদের তত্ত্বাবধানে এক জন বা দু’তিন জন পড়ুয়ার মুখোমুখি পড়াশোনা ও মত-বিনিময়ের এই ব্যবস্থা কেমব্রিজের অন্যতম আকর্ষণ। সাধারণত শিক্ষকদের স্টাডিতেই বসে সেই ক্লাস। কিন্তু এখন কেমব্রিজের সার্বিক প্রথাগত ক্লাস যে-হেতু অনলাইনেই হবে, তাই ফাঁকা ক্লাসরুম বা লেকচার হলগুলিকে টিউটোরিয়াল বা ছোট ছোট গোষ্ঠীতে পড়ানোর জন্য ব্যবহার করা হবে, যাতে যথেষ্ট দূরত্ব রেখেই সবাই বসতে পারেন। লকডাউন বা অন্য কোনও কারণে পড়ুয়ারা আসতে না-পারলে টিউটোরিয়াল কী ভাবে তাঁদের কাছে পৌঁছে দেওয়া যেতে পারে, শিক্ষকদের তা-ও ভেবে দেখতে বলা হয়েছে। 
 
অ্যালিস জানিয়েছেন, বিভিন্ন বিভাগ ও শিক্ষকেরা যাতে ভবিষ্যতের পড়াশোনা নিয়ে পরিকল্পনার যথেষ্ট সময় পান, তাই অনেকটা আগেই এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হল। আগামী শিক্ষাবর্ষের অনলাইন ক্লাসগুলি যথাসম্ভব উৎকৃষ্ট গুণমানে লাইভ-স্ট্রিমিং করা তো হবেই, সেই সঙ্গে তা রেকর্ডও করা হবে। কেমব্রিজের পড়ুয়ারা ‘মুডল’ নামে অনলাইন-শিক্ষার যে প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করেন, সেখানেও এই রেকর্ড-করা ক্লাসগুলি পাওয়া যাবে। 
 
এর আগে ম্যাঞ্চেস্টার বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম জানিয়েছিল যে, সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে চলা তাদের শিক্ষাবর্ষের সমস্ত ক্লাস অনলাইনে হবে। তার পরে সেই পথে হাঁটল কেমব্রিজও। অবশ্য করোনার জন্য মার্চে লকডাউন শুরুর পর থেকেই অনলাইনে ক্লাস ও পরীক্ষা চলছে কেমব্রিজে। পড়ুয়ারাও বাড়ি চলে গিয়েছিলেন। 
ইংল্যান্ডের উচ্চশিক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ ‘অফিস ফর স্টুডেন্টস’-এর তরফে দিন দুয়েক আগেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে বলা হয়েছিল, পরবর্তী শিক্ষাবর্ষের পঠন-পদ্ধতি ও সুযোগ-সুবিধার বিষয়গুলি জানিয়ে দিতে হবে তাদের। ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে পড়ার খরচ বছরে প্রায় ৯০০০ পাউন্ড (৮ লক্ষ টাকারও বেশি)। সঙ্গে থাকা-খাওয়ার খরচও রয়েছে। এ দিকে, এ দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে নাম নথিভুক্তির সময়সীমা শেষ হচ্ছে ১৮ জুন। সেই কারণেই এমন নির্দেশ, যাতে গোটা বিষয়টি পড়ুয়াদের কাছে স্পষ্ট থাকে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন