নিজের মেয়েকে অনলাইনে বিক্রি করার জন্য বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন অ্যান্ড্রু জেমস টার্লি নামে আমেরিকার হিউস্টন শহরের এক ব্যক্তি। শিশু পাচার ও আঠারো বছরের নীচে কাউকে জোর করে যৌনপেশায় ঠেলে দেওয়ার অপরাধে তাকে ৬০ বছরের কারাদণ্ড দিল কোর্ট। আদালতের নির্দেশ, ৭৫ বছর বয়স হওয়ার আগে প্যারোলে মুক্তির আর্জিও জানাতে পারবে না অভিযুক্ত।

‘প্লে উইথ ড্যাডিজ লিট্ল গার্ল’ শীর্ষক একটি বিজ্ঞাপন নজরে পড়েছিল হিউস্টন পুলিশের। তারা ক্রেতা সেজে যোগাযোগ করে ওই ব্যক্তির সঙ্গে। মোটামুটি সত্তরটিরও বেশি ইমেল জুড়ে চলে দরাদরি পর্ব। সেখানে শিশুটির সঙ্গে সহবাসের জন্য দু’ঘণ্টায় ১০০০ ডলার দাবি করা হয়। যৌনসম্পর্ক স্থাপন করার জন্য শিশুটি সক্ষম না হলেও, বাকি সব কিছুর ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধে নেই বলে ছদ্মবেশী খদ্দেরদের আশ্বাস দেন টার্লি। সেই সময় মেয়েটির বয়স দশের নীচে বলে জানিয়েছিল টার্লি। তবে ক্রেতা সেজে টার্লির দেওয়া ঠিকানায় পৌঁছে পুলিশ দেখে শিশুটির বয়স আরও কম। একটি কম্বল চাপা দিয়ে নগ্ন করে শুইয়ে রাখা ছিল শিশুটিকে। সঙ্গে-সঙ্গে পুলিশ গ্রেফতার করে টার্লিকে।