কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদের পর থেকেই পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়ে নানা ভাবে চাপ বাড়াচ্ছে চিন। সম্প্রতি চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-র পাকিস্তান সফরের সময় দু’দেশের যৌথ বিবৃতিতে জম্মু-কাশ্মীরের উল্লেখ থাকায় অস্বস্তি বেড়েছে ভারতের। বিষয়টি নিয়ে আজ কড়া সুরে প্রতিক্রিয়া জানায় ভারত। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বিবৃতিতে বলেন, ‘‘চিনের বিদেশমন্ত্রীর সাম্প্রতিক পাক সফরে দু’দেশের মধ্যে দেওয়া যৌথ বিবৃতিতে জম্মু ও কাশ্মীরের উল্লেখ রয়েছে। আমরা এই বিবৃতি খারিজ করছি। জম্মুও কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ।’’

কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের অনুরোধে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বিষয়টি তোলে চিন। সে সময় কিছু করতে না পারলেও নানা ভাবে তারা দিল্লিকে চাপে ফেলছে। গত সপ্তাহে চিনা বিদেশমন্ত্রী পাকিস্তানে গিয়েছিলেন কাবুলের পরিস্থিতি আলোচনা করতে। সেখানেই উঠেছে কাশ্মীর প্রসঙ্গ। যৌথ বিবৃতিতে তা নথিভুক্তও করা হয়েছে। এতেই চাপে পড়েছে সাউথ ব্লক।

শুধু যৌথ বিবৃতি খারিজ করা নয়, পাল্টা চাপ বাড়িয়ে আজ ভারত চিন-পাক অর্থনৈতিক করিডরের প্রসঙ্গও তোলে। এই প্রকল্পটির বিরোধিতায় দীর্ঘদিন ধরেই সরব ভারত। আজ বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র জানান, প্রস্তাবিত প্রকল্পটির একটি অংশ যেখান দিচ্ছে যাচ্ছে, সেটি ভারতের এবং ১৯৪৭ সাল থেকে সেটি অবৈধ ভাবে দখল করে রেখেছে পাকিস্তান।