ব্যস্ততার শহুরে জীবনে মাছ ধরতে যাওয়ার সময় বার করাও এখন বিলাসিতা। তবে বছরে একটা দিন বন্ধুবান্ধব মিলে যদি মাছ ধরতে বসা যেত তবে মন্দ হত না। কিন্তু সেই মাছ যদি হয় পিরানহা! তাহলে কেমন হয়? অবাক হবেন না। এমনটাই হয় জাপানে।

শুরুটা হয়েছিল মজা করতে গিয়ে। ‘বিশ্বের বিপজ্জনকতম মাছ ধরার অনুষ্ঠান’-এর আয়োজক ইয়ানো তোমোয়কি জানিয়েছেন, প্রথমে মজার ছলে তিনি বলেন, জাপানে এক লাখ পিরানহা আনছেন মাছ ধরার প্রতিযোগিতার করবেন বলে। সেই খবর চাউর হতেই একের পর এক ফোন। তাঁরা জানতে চান, টিকিট কবে থেকে পাওয়া যাবে। এই উত্সাহ দেখে শেষপর্যন্ত পিরানহা ধরার অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

তোমোয়কি জানিয়েছেন, দক্ষিণ আমেরিকার অ্যামজন নদী থেকে তাঁরা এক হাজার পিরানহা নিয়ে এসেছেন জাপানে। মাংসাশী ভয়ঙ্কর এই প্রতিটিকে মাছকে আলাদা আলাদা হাজারটি বাক্সে করে আনতে হয়েছে।

 

 

আরও পড়ুন : জাপানের গোটা একটা দ্বীপ জুড়ে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব যুবকের

আরও পড়ুন : মাঝ সমুদ্রে তিমির সঙ্গে ধাক্কা জাহাজের, আহত প্রায় ৮০ জন

তবে মাছ ধরার এই অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য হল, অতিথিদের কাছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নানা স্বাদের মাংস পরিবেশন করা। সেই মাংসের মধ্যে গরু, শুয়োর, মুরগির পাশাপাশি কুমির, ক্যাঙ্গারুর মংসও থাকে। তবে পিরানহার মাংস এই অনুষ্ঠানে খাওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন তোমোয়কি। পিরানহা কেবল ধরা হয়, তারপর আবার সেগুলি ছেড়ে দেওয়া হবে ছোট্ট পুকুরটিতে। এটাই মজা।