• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জেলে গুরুতর অসুস্থ নওয়াজ শরিফ, চিকিত্সায় বাধার অভিযোগ মেয়ের

nawaz
নওয়াজ শরিফ।—ফাইল চিত্র।

দুর্নীতি মামলায় জেলবন্দি পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। সেখানে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিনি। কিন্তু প্রয়োজনীয় চিকিত্সা পরিষেবা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ তাঁর মেয়ে মরিয়ম শরিফের। মরিয়মের দাবি, হাতে প্রচণ্ড যন্ত্রণা হচ্ছে তাঁর বাবার। খবর পেয়ে তাঁর কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা করেন ব্যক্তিগত চিকিত্সক। কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ তাঁকে অনুমতি দেননি।

নওয়াজ শরিফ সম্ভবত আঞ্জনায় ভুগছেন বলে দাবি মরিয়মের, যে রোগে হৃদপিণ্ডে রক্ত প্রবাহ কমে যায়। বুকে ও হাতে অসম্ভব যন্ত্রণা শুরু হয়। সেখান থেকে হৃদরোগে আক্রান্ত হন মানুষ। তা নিয়ে শুক্রবার নিজের টুইটার হ্যান্ডলে মরিয়ম লেখেন, ‘‘হাতে অসম্ভব যন্ত্রণা হচ্ছে মিঞা নওয়াজ শরিফের। সম্ভবত আঞ্জনার জন্যই। এমনিতেই জটিল শারীরিক সমস্যা রয়েছে ওঁর। ব্যক্তিগত চিকিত্সকরা সে ব্যাপারে অবগত। তাই দিনভর ওঁর কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা করেন ওঁর ব্যক্তিগত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ। কিন্তু জেলে ঢোকার অনুমতি পাননি তিনি।’’ 

পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এবং পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন)-এর নেতা নওয়াজ শরিফ, আল আজিজিয়া স্টিল মিল দুর্নীতি কাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হন। দুর্নীতির টাকায় সৌদি আরবে তেলের মিল খোলার অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হয় আদালতে। তার জেরে গত বছর ২৪ ডিসেম্বর ৭ বছরের সাজা হয়ে তাঁর। এই মুহূর্তে লাহৌরের কোট লাখপত সেন্ট্রাল জেলে বন্দি রয়েছেন তিনি। জেল কর্তৃপক্ষ তাঁর অসুস্থতার কথা মেনে নিয়েছেন। তবে চিকিত্সা পরিষেবা না দেওয়ার অভিযোগ উড়িয়ে দেন তাঁরা। একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়, ‘‘জেলের চিকিত্সকরা নওয়াজ শরিফের শারীরিক অবস্থার দিকে নজর রেখেছেন। সবকিছু পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। এখন ভাল আছেন উনি।’’

মরিয়ম শরিফের টুইট।

আরও পড়ুন: অখিলেশের সঙ্গে জোট ঘোষণা করে মায়ার চ্যালেঞ্জ, ‘মোদী-অমিতের ঘুম ছুটিয়ে দেব’​

আরও পড়ুন: ‘বর্মার বিরুদ্ধে দুর্নীতির কোনও প্রমাণ নেই,’ বললেন তদন্তে নজর রাখা অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি​

দিনভর তরজার পর, শুক্রবার বিকেল ৫টা নাগাদ নওয়াজ শরিফের ব্যক্তিগত চিকিত্সক আদনানকে জেলে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয় বলে জানায় পাকিস্তানের জিও টিভি। তবে তাতেও বিতর্ক থামানো যায়নি। তিনবছর আগেই লন্ডনে ওপেন হার্ট সার্জারি হয় নওয়াজ শরিফের। তাঁর স্বাস্থ্য নিয়ে গাফিলতি ধরা পড়লে কাউকে রেয়াত করা হবে না বলে হুমকি দেন পিএমএল-এন নেতা আহসান ইকবাল। প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, অভ্যন্তরীণ সচিব এবং জেল সুপারিন্টেন্ডেন্ট-এর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন