সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কথায় রাজি মাদুরো, রুশ বিমান নিয়ে জল্পনা চলছে

Juan Guaido
বিরোধী নেতা হুয়ান গাইডো নিজেকে কার্যনির্বাহী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেন মাদুরোকে।—ছবি রয়টার্স।

আপসে রাজি ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। রুশ সংবাদ সংস্থা বুধবার জানিয়েছে, আমেরিকা সমর্থিত বিরোধীর সঙ্গে মাদুরো আলোচনায় বসতে প্রস্তুত। তা ছাড়া, ভেনেজুয়েলায় নির্ধারিত সময়ের আগে পার্লামেন্ট নির্বাচনেও তাঁর কোনও আপত্তি নেই। কারাকাস থেকে এক সাক্ষাৎকারে মাদুরো বলেছেন, ‘‘দেশের ভালর জন্য আমি বিরোধীদের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসতে রাজি।’’ তবে ফের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেন তিনি।

গত সপ্তাহ থেকে লাতিন আমেরিকার তেল-সমৃদ্ধ কিন্তু অর্থনৈতিক ভাবে বিধ্বস্ত দেশটি তুমুল রাজনৈতিক অস্থিরতার সাক্ষী। আমেরিকা সমর্থিত বিরোধী নেতা হুয়ান গাইডো নিজেকে কার্যনির্বাহী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেন মাদুরোকে। গাইডোকে অন্তর্বর্তিকালীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে মেনেও নেয় আমেরিকা-সহ লাতিন আমেরিকার বেশ কিছু দেশ এবং কানাডা। তবে বন্ধু দেশ চিন এবং রাশিয়াকে পাশে পেয়েছেন মাদুরো, যারা এই সঙ্কটে ‘তৃতীয় পক্ষের’ নাক গলানো নিয়ে আপত্তি তুলেছে। 

এর মধ্যে আজ আবার রাশিয়ার একটি যাত্রী-বিমান কারাকাসে এসে পৌঁছনোয় তৈরি হয়েছে জোর জল্পনা। চারশো যাত্রিবাহী ৭৭৭ বোয়িংটি রাশিয়ার নর্ডউইড এয়ারলাইন্স-এর। মস্কো থেকে সরাসরি এসে সেটি নেমেছে কারাকাসে। এই প্রথম ওই পথে কোনও বিমান এল বলে দাবি সংবাদ সংস্থার। নর্ডউইড বা ভেনেজুয়েলা সরকার— কেউই এই বোয়িংয়ের আগমন নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চায়নি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েছে, ওই বিমানে অস্ত্র এসেছে রাশিয়া থেকে। কেউ বলছেন, মাদুরোকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যেতেই এসেছে ওই বিমান। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন