এত দিন ইসলামাবাদের ভুলের দিকে আঙুল তুলত ওয়াশিংটন। এ বার মার্কিন বিদেশ দফতরের বিবৃতিতে একটি ‘ভুল’ দেখালেন পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেই ‘ভুল শুধরে’ নিতেও বললেন তিনি।

মার্কিন বিদেশ দফতরের মুখপাত্র হিদার ন্যুয়ার্ট একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন, পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে টেলিফোনে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পিও তাঁকে পাক ভূখণ্ডে ঘাঁটি গেড়ে থাকা সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে ‘চরম ব্যবস্থা’ নিয়ে আফগানিস্তানে শান্তি ফেরানোর প্রক্রিয়ায় বড় ভূমিকা নিতে বলেছেন ইসলামাবাদকে।

এইখানেই তীব্র আপত্তি পাক প্রধানমন্ত্রীর। ইমরান জানিয়েছেন, পাক বিদেশ মন্ত্রক ওই ‘ভুল যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শুধরে’ নিতে বলেছে মার্কিন বিদেশ মন্ত্রককে।

পাক বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে পম্পিওর নানা বিষয়ে কথা হয়েছে ইমরানের সঙ্গে। তবে ‘পাক ভূখণ্ডে ঘাঁটি গেড়ে থাকা জঙ্গি’দের নিয়ে ইমরানের সঙ্গে কোনও কথাই হয়নি মার্কিন বিদেশ সচিবের।

আরও পড়ুন- সার্ক নিয়ে দ্বিধায় মোদী, ভারতে বিশেষ দূত পাঠাতে পারেন ইমরান

আরও পড়ুন- ইমরানকে ডাকেননি মোদী, তবু জলঘোলা​

তাঁর টুইটে পাক বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র মহম্মদ ফয়জল বলেছেন, ‘‘মার্কিন বিদেশ দফতরের ওই বিবৃতি আমরা মেনে নিতে পারছি না। পাক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে এমন কোনও কথাই হয়নি মার্কিন বিদেশ সচিবের। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বিবৃতির ওই ভুল শুধরে নিতে বলা হয়েছে মার্কিন বিদেশ দফতরকে।’’

ইসলামাবাদের কূটনৈতিক সূত্রকে উদ্ধৃত করে পাকিস্তানের প্রথম সারির দৈনিক ‘দ্য ডন’ জানিয়েছে, আগামী ৫ সেপ্টেম্বর ইসালামাবাদে যাওয়ার কথা মার্কিন বিদেশ সচিবের।