• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পড়শিদের অবস্থান বোঝাচ্ছেন মোদী

main
নরেন্দ্র মোদী।

Advertisement

চিনের চাপে কণ্টকাকীর্ণ মোদী সরকারের বিদেশনীতি—এমনই বারবার বলে এসেছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। নতুন বছরের শুরুতে তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে নাগরিকত্ব আইন, কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে নিজেদের ভাবমূর্তি অক্ষুণ্ণ রাখার দায়। বাংলাদেশের মতো প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গেও সম্পর্ক তিক্ত হয়েছে এনআরসি এবং নাগরিকত্ব আইন নিয়ে। 

বছরের প্রথম দিনই তাই পাকিস্তান বাদে অন্যান্য প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে দৌত্য শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি বিভিন্ন রাষ্ট্রকে ভারতের অবস্থান বোঝানোর এই তৎপরতা আগামী কয়েক সপ্তাহে আরও বাড়ানো হবে বলে বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে। আজ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার জানিয়েছেন, ‘‘আমরা দু’রকম ভাবে বিভিন্ন দেশকে নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি ও কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে আমাদের অবস্থান ও প্রকৃত পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করছি। প্রথমত, দিল্লিতে যে সব দেশের রাষ্ট্রদূত রয়েছেন, তাঁদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। দ্বিতীয়ত, বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের নেতৃত্বের সঙ্গে আমাদের দূতাবাস যোগাযোগ করছে।’’ রবীশ বলেন, সকলকে বোঝানো হচ্ছে যে নাগরিকত্ব আইন সংক্রান্ত যা ঘটছে, তা একান্তই অভ্যন্তরীণ বিষয়। অন্য কোনও দেশকে তা কোনও ভাবেই প্রভাবিত করছে না। নিছক ধর্মের ভিত্তিতে কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হবে না। দেশের সংবিধানের অমর্যাদাও করা হচ্ছে না।

গত কাল ফোনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা হয় নরেন্দ্র মোদীর। নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা হয়েছে। মার্চ মাস থেকে শুরু হওয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী অনুষ্ঠানের সাফল্য কামনা করেছেন মোদী। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য গত অক্টোবর মাসেই মোদীকে আমন্ত্রণ করেছিলেন হাসিনা। কিন্তু তার পর সংসদে নাগরিকত্ব বিল পাশ করানোর সময় বারবার পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের নামটি সংযুক্ত করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এনআরসি নিয়ে আগে থেকেই ঢাকায় তৈরি হওয়া ক্ষোভের আগুনে ঘৃতাহুতি দিয়েছে নাগরিকত্ব বিল। হাসিনা তাঁর ক্ষোভ গোপন না রেখে বাংলাদেশের মন্ত্রীদের পর পর তিনটি সফর বাতিল করেছেন। আজ এই প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘আমরা বাংলাদেশ নেতৃত্বকে গোটা বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বুঝিয়েছি। বলা হয়েছে যে, এনআরসি একটি অভ্যন্তরীণ বিষয়। বাংলাদেশ নেতৃত্বও সরকারি ভাবে এই নিয়ে যা বলেছেন, তা সবাই জানেন। তবে বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সূত্রে কিছু কথা শোনা গিয়েছে। যার প্রতিক্রিয়া দেওয়া আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।’’ 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন