তিব্বতি ধর্মগুরু দলাই লামার অসুস্থতার খবর নিয়ে প্রকাশ্যে আলোচনা শুরু হওয়ায় অস্বস্তিতে দিল্লি। খবর প্রকাশ্যে আসায় দলাইয়ের উত্তরাধিকার প্রশ্নে চিনের প্রভাব খাটানোর সুযোগ বেড়ে গিয়েছে বলে মনে করছে সাউথ ব্লক।

দু’বছর ধরেই আমেরিকার হাসপাতালে প্রস্টেট ক্যান্সারের চিকিৎসা চলছে চতুর্দশ দলাই লামার। রোগ এখন জটিল আকার নিয়েছে। বছর খানেক আগে ভারত সরকার বিষয়টি সবিস্তার জানতে পারে। কিন্তু অসুস্থতার খবর দুনিয়ার সামনে ছিল না। কয়েক মাস আগে চিনও বিষয়টি জানতে পারে। আর নয়াদিল্লির কাছে সেটাই হয়ে দাঁড়িয়েছে চিন্তার বিষয়। কারণ, ৮২ বছর বয়সি দলাই লামার উত্তরাধিকার নিয়ে বিভিন্ন দেশের উৎসাহ রয়েছে। ২০১৫ সালে বেজিং বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করলে ক্ষোভ জানান তিব্বতি ধর্মগুরু। তখনই জানিয়েছিলেন, তাঁর ৯০ বছরের জন্মদিনে এই বিষয়ে ফয়সালা হবে। তবে দলাই লামার যা শারীরিক অবস্থা, তাতে উত্তরাধিকারের ফয়সালা শীঘ্রই হতে পারে বলে জল্পনা চলছে। তবে ‘সেন্ট্রাল টিবেটান অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ ধর্মগুরুর শারীরিক অবস্থা নিয়ে আশঙ্কার কথা অস্বীকার করেছে।