• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অ্যাডভান্টেজ হিলারি! ট্রাম্পকে নিয়ে ফাটল রিপাবলিকানদের মধ্যেই

trump
ছবি-ইন্টারনেট।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মুখে তাঁর দল রিপাবলিকান পার্টিকে প্রায় দু’টুকরো করে দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প!

আসন্ন ভোটে দলের মুখকেই এখন মানতে চাইছেন না রিপাবলিকান পার্টির অনেক নেতা। তাঁরা কেউ প্রকাশ্যে গাল পাড়ছেন দলের প্রেসিডেন্ট পদ-প্রার্থী ট্রাম্পকে। কেউ ট্রাম্পকে বলছেন ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’। আর কেউ একেবারে রাস্তায় দাঁড়িয়ে জোর গলায় জানিয়ে দিচ্ছেন, তাঁর ভোটটা তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনকেই দেবেন। সব মিলিয়ে এটা স্পষ্ট, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জোট বেঁধে প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে লড়াই করার চেয়ে ট্রাম্প-বিরোধিতাতেই মেতে উঠেছেন রিপাবলিকান পার্টির নেতাদের একটি বড় অংশ। ট্রাম্পের একের পর এক ‘ভারসাম্যহীন মন্তব্য’ই সরাসরি বা পরোক্ষে হিলারির পাশে এনে দিচ্ছে রিপাবলিকান পার্টির একটি গুরুত্বপূর্ণ শিবিরকে। রিপাবলিকানদের কাছে ট্রাম্পের ‘মাইনাস’গুলোই হয়ে দাঁড়াচ্ছে ডেমোক্র্যাট হিলারির ‘প্লাস পয়েন্ট’!

এই ‘অশনি সংকেত’ কি আগেই পেয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেমোক্র্যাট বারাক ওবামা? যে দিন হিলারিকে ‘শয়তান’ বললেন ট্রাম্প, সেই মঙ্গলবারই হিলারির পক্ষে রিপাবলিকানদের আরও বেশি করে বেরিয়ে আসার ডাক দিয়েছিলেন ওবামা। আর তার পরেই যেন অগ্নিতে ঘৃতাহুতি হল! ভোটের মুখে ট্রাম্প-ইস্যুতে যে রিপাবলিকান শিবির ভেঙে চৌচির, ঘরের ঝগড়া বাইরে বেরিয়ে এসে তা ফাঁস করে দিল।

ট্রাম্প নিয়ে রিপাবলিকানরা কতটা ভেঙে চৌচির, তার দু’-একটা উদাহরণ দেওয়া যাক। এক, রিপাবলিকান পার্টির তহবিল ভরানোর বড় দায়িত্বটা যিনি পালন করেন, সেই মেগ হুইটম্যান বলেছেন, ‘‘ট্রাম্প যে সব কথাবার্তা বলছেন, তাতে জাতীয় সংহতিই না বিপন্ন হয়ে যায়!’’ দুই, রিপাবলিকান পার্টির ‘হেভিওয়েট’ জঁ হাল্পার-হায়েস বলেছেন, ‘‘ভাবসাব দেখে আমার মনে হয়, ট্রাম্পের কোনও কিছুরই ঠিক নেই। উনি মানসিক ভারসাম্যহীন।’’ তিন, দিনদু’য়েক আগে আরও দুই রিপাবলিকান- কংগ্রেসের স্পিকার পল রায়ান আর সেনেটর জন ম্যাকেন প্রকাশ্যেই দুরমুশ করেছিলেন ট্রাম্পকে। এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে তাঁরা এও বলেছিলেন, নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রাক-মুহূর্তে রিপাবলিকান পার্টি বরং আরও এক বার কনভেনশন ডেকে ঠিক করুক, কাকে তারা হিলারির বিরুদ্ধে লড়তে পাঠাবে! চার, ট্রাম্পের লাগাতার মুসলিম-বিদ্বেষ রিপাবলিকান পার্টির বহু সেনেটর আর বিভিন্ন প্রদেশে তাদের গভর্নর ও প্রবীণ নেতাদের এতটাই চটিয়ে দিয়েছে যে তাঁরা নিজেদের মধ্যে সই সংগ্রহ করতে শুরু করে দিয়েছেন, অনেকটা গণ-স্বাক্ষর অভিযানের জন্য। ট্রাম্পের লাগাতার মুসলিম-বিদ্বেষের জবাব দিতেই একটি অভিবাসী মুসলিম পরিবারের বক্তব্যকে আসন্ন ভোটে তাঁদের স্লোগান করে ফেলেছেন ডেমোক্র্যাটরা। ‘মাই নেম ইজ খান অ্যান্ড আই অ্যাম আমেরিকান পেট্রিয়ট’। ওই পরিবারের সন্তান মার্কিন সেনাবাহিনীর সদস্য হয়ে ইরাক-যুদ্ধে প্রাণ হারিয়েছিলেন। ট্রাম্প তাকেও কটাক্ষ করায় প্রবীণ রিপাবলিকান নেতারা প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন, ‘‘এই লোকটার (ট্রাম্প) হাতে কী ভাবে দেশের দায়িত্ব দেওয়া যায়, যিনি দেশের সৈনিকদেরই অপমান করেন?’’ ঘটনাচক্রে, এখানেই ডেমোক্র্যাট ওবামার সুরে সুর মিলে গিয়েছে ট্রাম্প-বিরোধী রিপাবলিকানদের। মঙ্গলবার এওবামাও বলেছিলেন, ‘‘ট্রাম্প কি হোয়াইট হাউসে যাওয়ার যোগ্য? রিপাবলিকানরা একটু ভেবে দেখুন!’’

বোঝা যাচ্ছে, রিপাবলিকান শিবিরের একটি বড় অংশ এ বার সত্যি-সত্যিই ভাবতে শুরু করেছেন!

আরও পড়ুন- রানওয়ে ছুঁতেই বিমানে আগুন, ভাঙল ডানা, তবে যাত্রীরা অক্ষত

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন