পাক অধিকৃত কাশ্মীরের যে সব এলাকায় রবিবার ভারত গোলাবর্ষণ করেছিল, একদল আন্তর্জাতিক কূটনীতিককে আজ সেই জায়গাগুলি দেখাতে নিয়ে গিয়েছিল ইমরান খানের সরকার। কিন্তু আন্তর্জাতিক সমর্থন কুড়োনোর সেই প্রয়াস অনেকটাই ঢাকা পড়ে গেল খোদ মুজফ্‌ফরাবাদে স্বাধীনতাকামীদের মিছিল এবং পুলিশি আক্রমণে দু’জনের মৃত্যুতে।

১৯৪৭ সালে পাকিস্তানের কাশ্মীর আক্রমণের দিনটিকে এ বারও কালা দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পাক-অধিকৃত কাশ্মীর এবং গিলগিট বালতিস্তানের বেশ কিছু রাজনৈতিক দল। মুজফ্‌ফরাবাদের মিছিলটি ছিল ‘অল ইন্ডিপেন্ডেন্ট পার্টিজ অ্যালায়েন্স’-এর ছাতার তলায়। সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়া ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, পুলিশ কাঁদানে গ্যাস এবং বেটনের বাড়ি মেরে মিছিল ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করছে। তাতে মারা যান দু’জন। কূটনীতিকদের নিয়ে প্রশাসনের দল গিয়েছিল নৌসেরি, শাহকোট, জুরা সেক্টরে। সেখানে প্রাণহানিতে পাক সরকারেরই মুখ পুড়ল বলে মনে করা হচ্ছে। প্রতিবাদীরা বলেছেন, ‘‘সরকার আগ্রাসী হয়ে আমাদের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা করলে তা সফল হবে না।’’