কাশ্মীর-সমস্যা নিয়ে ভারতকে হুঁশিয়ারি দিলেন পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী। পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশির হুঁশিয়ারি, যে ভাবে দিন দিন কাশ্মীর পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে, তাতে কাশ্মীর নিয়ে একগুঁয়ে মনোভাবের জন্য ভারতকে পস্তাতে হবে।

গত সপ্তাহেই কাশ্মীর-সমস্যা নিয়ে হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কাশ্মীর নিয়ে নতুন করে বিতর্কের সূত্রপাত ওই বৈঠকেই। সেই বৈঠকে ট্রাম্প পাক প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছিলেন, কাশ্মীর নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে তিনি মধ্যস্থতা করতে আগ্রহী। আর এই মধ্যস্থতার প্রস্তাব নাকি নরেন্দ্র মোদীই তাঁকে দিয়েছেন। ওই বৈঠকে ইমরান খান ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পাক সেনাপ্রধান কমর জাভেদ বাজওয়া, আইএসআই প্রধান ফৈয়জ হামিদ ও বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি। ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই মন্তব্যের পরই তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়। এই প্রসঙ্গে এখনও মোদী মুখ না খুললেও, ভারতের বিদেশ মন্ত্রক সেই দাবি নস্যাৎ করেছে।

এ দিন এক পাক সংবাদমাধ্যমে কুরেশি জানান, এই বৈঠক নিয়ে তাঁরা যা আশা করেছিলেন তার চেয়ে বেশি ফলপ্রসূ হয়েছিল। ট্রাম্পের মধ্যস্থতার প্রস্তাব তাঁদের আশাতীত ছিল। কাশ্মীর যে একটা জ্বলন্ত সমস্যা এবং দ্রুত এর সমাধান হওয়া উচিত, তা প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বোঝাতে পেরেছিলেন, জানান কুরেশি। এর পরই তিনি বলেন, ‘কাশ্মীর সমস্যা নিয়ে একগুঁয়ে মনোভাবের জন্য ভারতকে পস্তাতে হবে’ কারণ যত দিন যাচ্ছে উপত্যকার পরিস্থিতির আরও ‘অবনতি’ হচ্ছে।

আরও পড়ুুন:
অনলাইনে বিজেপির ‘সদস্য’ হলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান!
কাশ্মীরে পাক জঙ্গিদের হামলা রুখতেই বাড়তি আধাসেনা, দাবি সরকারি সূত্রের