তখন বিকেল ৩টে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওহায়ো শহরের আকাশে বিকট শব্দ করে ভেঙে পড়ল বেসরকারি সংস্থার একটি ছোট বিমান। পড়ল একটি বাড়ির ছাদে। আর তার পরেই ঝলকে উঠল আগুনের গোলা। ভেঙে পড়ার সময় বিমানে টেলিফোন ও বিদ্যুতের তার জড়িয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ল আগুন। শহরে তত ক্ষণে দুর্ঘটনার আঁচ ছড়িয়ে পড়েছে। এক লহমায় আশপাশের ১৫০০টি বাড়িতে বিদ্যুতের সংযোগ বিছিন্ন। বিমান সংস্থা সূত্রে খবর, দুর্ঘটনায় ২ বিমানকর্মী ও ৭ যাত্রীর কেউই আর বেঁচে নেই। তবে সেই মুহূর্তে ওই বাড়িতে কেউ না থাকায় আর কোনও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু কেন এই দুর্ঘটনা? বিমান সংস্থার দাবি, বিমানে কোনও রকম যান্ত্রিক ত্রুটি ছিল না। এমনকী, বিমান ছাড়ার পরেও বিমান-চালক কোনও যান্ত্রিক গোলযোগের কথা কন্ট্রোল রুমকে জানাননি। দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। পুলিশি তদন্ত চলছে।