শ্রীলঙ্কা জুড়ে বিস্ফোরণের দায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) স্বীকার করার পর প্রশ্ন উঠেছে, নিউজিল্যান্ডে  মসজিদে হামলার বদলাই যদি তারা নেবে, তা হলে ইউরোপ বা আমেরিকায় হামলা হল না কেন?  

এ কথা সকলেই জানেন যে আইএস-এর ঘোষিত শত্রু পশ্চিমী দেশগুলি, ইহুদি ও খ্রিস্টানেরা।  তা হলে শ্রীলঙ্কা কেন? ইউরোপ বা আমেরিকায় হামলা হলে প্রচার অনেক বেশি হত। নিশ্চয়, কিন্তু শ্রীলঙ্কাতেও  জঙ্গিরা পাঁচ তারা হোটেল ও গির্জাকেই নিশানা করেছে, যেখানে ইউরোপীয় বা মার্কিন

পর্যটকেরা থাকতেন। তাই নড়েচড়ে বসেছে আমেরিকাও। আল কায়দা বা আইএস প্রভাবিত জঙ্গিরা কিন্তু এর আগেও এশিয়া বা আফ্রিকার দেশগুলিতে খ্রিস্টান বা ইউরোপীয় বা মার্কিনদের নিশানা করেছে।  বিশ্ব জুড়ে সন্ত্রাস ছড়ানোই এদের লক্ষ্য। 

শ্রীলঙ্কাকে বাছার আরেকটি কারণ হতেই পারে এ দেশের ঢিলেঢালা নিরাপত্তা ব্যবস্থা। গৃহযুদ্ধের অবসানের পর নিরাপত্তা একেবারেই কড়া নয়। অপরিচিত লোকেরা অনায়াসে ডেরা বাঁধে এখানে। যেজন্য আন্তর্জাতিক মাদকচক্রের কেন্দ্র হয়ে উঠেছে আমার দেশ। জঙ্গিরা সেই সুযোগ নিয়েছে অনায়াসে। 

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে নিরাপত্তার কিছুটা কড়াকড়ির জন্যই আইএস বা আল কায়দা প্রভাবিত জঙ্গিরা এককভাবে আক্রমণ চালাচ্ছে। বড় মাপের সংঘটিত হামলার সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম।  তাই বলে ভবিষ্যতে বড় হামলার ছক যে জঙ্গিরা কষছে না, তাই বা কে বলতে পারে? শ্রীলঙ্কায় হামলা কি তারই মহড়া? 

                          লেখক সাংবাদিক