ধারাবাহিক হামলা যে হতে পারে, সে সম্পর্কে মাত্র দশ দিন আগেই সতর্ক করেছিলেন শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান পুজুথ জয়সুন্দর। তবু শেষ রক্ষা না। রবিবার ধারাবাহিক বিস্ফোরণ ও আত্মঘাতী হামলায় রক্তাক্ত হতে হল এই ছোট্ট প্রতিবেশী দেশটিকে। 

হামলার আশঙ্কায় পুলিশ প্রধান যে সতর্কবার্তা পাঠিয়েছিলেন সেই সংক্রান্ত নথি হাতে এসেছে বলে আজ দাবি করেছে একটি সংবাদ সংস্থা। তাদের মতে, ওই সতর্কবার্তায় বলা হয়েছিল, ‘ন্যাশনাল তৌহিথ জামাথ (এনটিজে) নামে একটি কট্টর মৌলবাদী সংগঠন দেশের বিভিন্ন গির্জায় আত্মঘাতী হামলার ছক কষছে। এমনকি কলম্বোয় ভারতীয় দূতাবাসেও হামলা হতে পারে।’ একটি বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা সূত্রে ওই সতর্কবার্তা পেয়ে গত ১১ এপ্রিল দেশের গোয়েন্দা দফতর ও শীর্ষ পুলিশ কর্তাদের জানিয়েছিলেন পুজুথ। 

গত বছর বেশ কয়েকটি বৌদ্ধ মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনায় প্রথম নজরে আসে শ্রীলঙ্কার এই কট্টরপন্থী মৌলবাদী সংগঠনটি। গোয়েন্দাদের দাবি, ২০০৪ সালের ২৬ মে তামিলনাড়ুতে তৈরি হয় এই সংগঠনটি। গত বছরেই চেন্নাইয়ে এক মার্কিন নাগরিককে মারধর করার অভিযোগ উঠেছিল এই সংগঠনগুলির বিরুদ্ধে। বছর দুয়েক আগে শ্রীলঙ্কা তৌহিথ জামাথের সম্পাদক আব্দুল রেজ্জাককে বৌদ্ধ ধর্ম সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল। গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, সে দেশে জাতিগত হানাহানি থাকলেও ধর্মীয় মৌলবাদের আধিপত্য তেমন ছিল না। বরং তামিলনাড়ু থেকে তৌহিথ জামাতের নেতা জয়নুল আবেদিন শ্রীলঙ্কা আসতে চাইলে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন দ্বীপরাষ্ট্রের মুসলিমদেরই একাংশ।