শুক্রবারই জন্মদিন এক বছর আগে আমেরিকার কানসাসে বর্ণবিদ্বেষের বলি ভারতীয় বংশোদ্ভূত ইঞ্জিনিয়ার শ্রীনিবাস কুচিভোটলার। আর আজ ফয়সালা হল তাঁর হত্যা মামলার! 

সম্প্রতি কুচিভোটলাকে খুনের কথা কবুল করেছে মার্কিন নৌসেনার প্রাক্তন কর্মী, ৫২ বছর বয়সি অ্যাডাম পিউরিনটন। আজ  তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় কানসাসের এক আদালত। গত বছর ২২ ফেব্রুয়ারি কানসাসের ওলেথে পছন্দের একটি পানশালায় সময় কাটাতে গিয়েছিলেন বছর বত্রিশের দক্ষিণ ভারতীয় যুবক কুচিভোটলা। সঙ্গে ছিলেন তাঁর বন্ধু অলোক মাদাসানিও। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কুচিভোটলা ও অলোকের উদ্দেশে অ্যাডাম বলে, ‘‘আমার দেশ ছেড়ে চলে যাও।’’ তার পরেই গুলি চালায় সে। ইয়্যান গ্রিলট নামে আর এক ব্যক্তি বাধা দিতে গেলেও তার উপরেও চড়াও হয় অ্যাডাম। পরে হাসপাতালের পথে মৃত্যু হয় কুচিভোটলার। অল্পের জন্য বেঁচে যান অলোক এবং ইয়্যান। ওই ঘটনায় প্রবাসী ভারতীয়দের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়। অ্যাডামের বিরুদ্ধে কুচিভোটলাকে খুন এবং অলোক ও ইয়্যানকে খুনের চেষ্টার মামলা করা হয়েছিল। তবে প্রথমে সে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে। গত বছর নভেম্বরের শেষের দিকে প্রাথমিক শুনানিতে হাজিরও থাকেনি। তবে পরে সে নিজের অপরাধ কবুল করে। 

কুচিভোটলার স্ত্রী সুনয়না আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘‘আজকের এই রায় শ্রীনুকে ফিরিয়ে দেবে না। কিন্তু বর্ণবিদ্বেষ যে মেনে নেওয়া হবে না, সে বিষয়ে কড়া বার্তা দেবে এই রায়।’’