ফের দেশ ছেড়ে জর্জিয়ায় পালিয়েছেন সৌদি আরবের দুই তরুণী। সম্পর্কে তাঁরা দুই বোন। ‘জর্জিয়াসিস্টারস’ নামে টুইটারে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে তাঁদের আর্তি, ‘‘জর্জিয়ায় আটকে। সৌদি প্রশাসন পাসপোর্ট বাতিল করে দিয়েছে। আমরা বিপদে। বাঁচান।’’ 

নিজেদের পাসপোর্টের ছবি টুইটারে পোস্ট করে জানিয়েছেন, তাঁদের নাম মাহা আলসুবাই (২৮) এবং ওয়াফা আলসুবাই (২৫)। ভিসা ছাড়াই সৌদি নাগরিকরা জর্জিয়া যেতে পারেন। একটি ভিডিয়ো আপলোড করে মাহা বলেছেন, ‘‘আমরা বিপদে।’’ আর একটি ভিডিয়োয় এক তরুণী বলছেন, ‘‘কোনও নিরাপদ দেশে আশ্রয় চাই। দেশে ফিরলে মেরে ফেলবে।’’ মেয়েটির মুখ দেখা যাচ্ছে না ভিডিয়োয়। ওয়াফা জানিয়েছেন, পরিবারের অত্যাচারে তাঁরা দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। দেশের দুর্বল আইন ব্যবস্থা তাঁদের রক্ষা করতে পারবে না। 

রাষ্ট্রপুঞ্জের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা জানিয়েছে, তারা বিষয়টির উপরে নজর রাখছে। জর্জিয়ার অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের বক্তব্য, এখনও পর্যন্ত তাদের কাছে সাহায্য চাননি দুই তরুণী। 

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

সৌদি যুবরাজ মহম্মদ বিন সলমন নারী ক্ষমতায়নের কথা বললেও, সম্প্রতি একের পর এক তরুণীর সৌদি আরব ছেড়ে পালানোর ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। সকলেরই দাবি, পরিবারের হাতেই চূড়ান্ত অত্যাচারিত হতে হচ্ছে তাঁদের। গত বছর ভারতে পালিয়ে গিয়েছিলেন এক সৌদি রাজকুমারী। এ বছরের শুরুতে নাটকীয় ভাবে দেশ ছেড়ে পালান ১৮ বছরের সৌদি তরুণী রাহাফ মহম্মদ আল-কুনুন। পরে কানাডা আশ্রয় দেয় তাঁকে। মার্চেও একই ঘটনা ঘটেছে। দুই সৌদি বোন হংকং পালিয়েছিলেন।