কোথাও তুলি দিয়ে, কোথাও বা শুধুই পেনসিল, সেই সব মহিলাদের মুখ নিখুঁত করে এঁকেছে স্যামুয়েল লিটল। এমনকি মনে রেখেছেন প্রত্যেকের চোখের মণির রং থেকে চুলের ধরন। চার দশক ধরে আমেরিকার নানা জায়গায়  অন্তত ৬০ জন মহিলাকে খুন করেছেন স্যামুয়েল। প্রায় প্রত্যেকের মুখের ছবি এঁকে রেখেছেন যত্নে। রয়েছে অচেনা মুখও। 

আপাতত ক্যালিফর্নিয়ার একটি জেলে যাবজ্জীবনের সাজা খাটছেন ৭৯ বছরের এই ধারাবাহিক খুনি। আমেরিকার ইতিহাসে স্যামুয়েল অন্যতম দুর্ধর্ষ ধারাবাহিক খুনি বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞেরা। এত দিন পর্যন্ত ‘গ্রিন রিভার কিলার’ গেরি রিগওয়েকেই দেশের সব চেয়ে সাংঘাতিক ধারাবাহিক খুনি হিসেবে জানত আমেরিকা। অন্তত ৪৯ জনকে খুন করেছিল গেরি। তবে সেই রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে স্যামুয়েল। 

ছোটবেলা কেটেছে ওহায়োতে। সেখানে অন্তত পাঁচটি খুনে জড়িত সে।  ১৯৭০-২০০৫ সালের মধ্যে সব চেয়ে বেশি খুন করেছে স্যামুয়েল। ২০১২ সালে কেন্টাকির একটি গৃহহীনদের আশ্রয়শিবির থেকে গ্রেফতার করা হয় স্যামুয়েলকে। এফবিআই জানায়, সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় ক্যালিফর্নিয়ায়। মাদক পাচারের মামলায় সেখানকার পুলিশ তাকে খুঁজছিল।  সে সময়ে নিহত তিন মহিলার শরীর থেকে পাওয়া ডিএনএ-র সঙ্গে মিলে যায় স্যামুয়েলের ডিএনএ। ওই তিন জনের প্রত্যেককেই মারধরের পরে গলা টিপে খুন করা হয়েছিল। আর এক মহিলা স্যামুয়েলের কবল থেকে বেঁচে ফিরে ২০১৪ সালে বিচার চলাকালীন আদালতে বয়ান দেন। 

তার পরেও বহু দিন মুখ খুলতে চায়নি খুনি। টেক্সাস পুলিশের এক গোয়েন্দা টেক্সাসের কয়েকটা খুনের কিনারা করতে জেলে স্যামুয়েলের সঙ্গে দেখা করতে যান। সে সময় হঠাৎ করেই একের পর এক খুনের স্বীকারোক্তি করতে থাকে স্যামুয়েল। জানায়, টেক্সাস, এক্টর কাউন্টি থেকে শুরু করে আমেরিকার অসংখ্য জায়গায় মহিলাদের ঠান্ডা মাথায় খুন করেছে সে। আইনজীবী ববি ব্লান্ড জানান, জীবনের এই পর্বে এসে বোধহয় নিজের সমস্ত কীর্তির কথা জানাতেই চাইছে স্যামুয়েল। 

ওহায়োর আইনজীবী ডেটারস জানাচ্ছেন, ঘাড়ের নির্দিষ্ট গড়ন রয়েছে এমন মহিলাদেরই মূলত নিশানা করত স্যামুয়েল। সমাজের প্রান্তিক মানুষকেও অনেক সময় ভেবেচিন্তে নিশানা করেছে সে। কখনও যৌনকর্মী, তো কখনও মাদকাসক্ত। প্রথমে মারধর এবং পরে শ্বাসরোধ করে খুন। যাতে অতিরিক্ত মাদক নেওয়া বা দুর্ঘটনা কিংবা স্বাভাবিক মৃত্যুর মতো দেখায় খুনগুলো। এ নিয়ে এখনও পর্যন্ত ৬০টি খুনের কথা জানতে পেরেছে পুলিশ। আরও অনেক অচেনা মহিলার ছবি এঁকেছে স্যামুয়েল, যা ক্রমশ প্রকাশ্যে আনছে পুলিশ। আশা, এতে বেশ কিছু কিনারা না হওয়া খুনের রহস্য সমাধান হবে। পুলিশের ধারণা, এর চেয়ে বেশি খুন করেছে স্যামুয়েল। সংখ্যাটা ৯০ ছাড়াবে বলেই অনুমান পুলিশের। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।