ইরান-আমেরিকা সম্পর্কে চাপানউতোর চলছেই। এরই মধ্যে পশ্চিম এশিয়ায় অতিরিক্ত আরও ১ হাজার সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিল পেন্টাগন। পরমাণু চুক্তি সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা না-করে আগামী দশ দিনে নিজেদের ইউরেনিয়ামের ভাঁড়ার বাড়ানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছে তেহরান। তার ঠিক ঘণ্টা কয়েক পরেই ওয়াশিংটন থেকে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন সংক্রান্ত এই ঘোষণা করেন ভারপ্রাপ্ত মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব প্যাট্রিক শানাহান। যদিও তাঁর দাবি, এই সিদ্ধান্ত ইরানকে চটাতে নয়। বরং ওই সব এলাকায় আগে থেকেই মোতায়েন মার্কিন সেনাকে নিরাপত্তা দেবে এই অতিরিক্ত বাহিনী।

ওয়াশিংটন বলছে, তেহরানের সঙ্গে সম্পর্কে তারা আর জটিলতা চায় না। কিন্তু সম্প্রতি ইরানের সেনা কিংবা তাদের মদতে পুষ্ট বাহিনীর একাংশ যে ভাবে হামলা চালিয়েছে, তা নিয়ে এ দিন উদ্বেগ প্রকাশ করেন প্যাট্রিক। তাই আত্মরক্ষার্থে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি পশ্চিম এশিয়ার সামগ্রিক পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রাখা হবে বলেও জানান। ইরানকে নিশানায় রেখে গত মাসেও সুর চড়িয়েছিলেন আমেরিকার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনও। এর পরেই পশ্চিম এশিয়ায় মোতায়েন হয় ‘আব্রাহাম লিঙ্কন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ’ ও একটি বোমারু টাস্ক ফোর্স।