আমেরিকার হোয়াইট হাউস থেকে বেশি দূর না। ওই এলাকার আর পাঁচটা রেস্তরাঁর মতোই ঝকঝকে সাকিনা হালাল গ্রিল। যদিও বাকিদের সঙ্গে ওই রেস্তরাঁর একটা তফাত আছে। বাকিদের মতো ডলারের বিনিময়ে সুস্বাদু খাবার পরিবেশনের পাশাপাশি ওই রেস্তরাঁটি বিনামূল্যেও খাবার দেয় তাঁদের, যাঁদের খাবার কিনে খাওয়ার মতো সামর্থ্য নেই। এই লক্ষ্য নিয়ে গত পাঁচ বছরে প্রায় ৮০ হাজার লোককে বিনা পয়সায় খাবার খাইয়েছে ওই রেস্তরাঁর মালিক কাজি মান্নান।

আমেরিকার প্রথম সারির সংবাদপত্রকে ওই রেস্তোরাঁর মালিক কাজি মান্নান বলেছেন, ‘‘আপনার যদি খাবার কিনে খাওয়ার ক্ষমতা না থাকে। চলে আসুন এখানে বিনামূল্যে খাবার খান।’’  ২০১৩-তে রেস্তরাঁ খোলার পর থেকে এই নীতিতেই অটল রয়েছেন মান্নান।

কিন্তু রেস্তরাঁ খুলে কেন এ লোককে বিনা পয়সায় খাবার খাওয়াচ্ছেন মান্নান? এই প্রশ্নের জবাবে নিজের জীবনের গল্প শুনিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন ছোটবেলায় কী রকম অভাব ও খিদে সহ্য করে দিন কাটাতে হয়েছে তাঁকে। পাকিস্তানের একটা ছোট গ্রামের মধ্যে তাঁর কষ্টকর জীবনই তাঁকে চিনিয়েছে খিদের জ্বালা কতটা কষ্টকর।

তাই সেই জীবনকে পিছনে ফেলে এলেও খাবার না থাকার কষ্টকে ভুলতে পারেননি তিনি। সে জন্যই রেস্তরাঁ খোলার পর থেকেই বছরে ১৬ হাজার জনকে এক বেলা করে খাবার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছিলেন তিনি। সেই লক্ষ্য পূরণের পথে আজও হেঁটে চলেছেন তিনি। 

আরও পড়ুন: এক সঙ্গে ছ’টি বাচ্চার জন্ম দিলেন পোল্যান্ডের মহিলা