Advertisement
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
bath

Bathing: বহু হলিউড অভিনেতা প্রত্যেক দিন স্নান করেন না, রোজ স্নান না করলেও কি চলে

দিনে এক বার করে স্নান করার নিয়ম আমরা ছোট থেকেই জানি। কিন্তু বহু খ্যাতনামী হঠাৎ জানাচ্ছেন, তাঁরা নাকি এতে বিশ্বাসী নন।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

শেষ আপডেট: ৩০ অগস্ট ২০২১ ১২:৩৬
Share: Save:

হলিউড অভিনেতা-জুটি মিলা কুনিস এবং অ্যাস্টন কুচার এক টক শোয়ে সম্প্রতি জানিয়েছেন, তাঁরা প্রত্যেক দিন তাঁদের সন্তানকে স্নান করান না। যখন গায়ে কোনও রকম নোংরা দেখতে পান, তখনই করার। এমনকি মিলা কুনিস নিজেও প্রত্যেক দিন স্নান করেন না। করলেও সাবান ব্যবহার করেন না!

এ দিকে হলিউডের অন্য অনেক অভিনেতাই এই ধরনের মন্তব্য করে টুইটারে বিতর্কের ঝড় তুলেছেন। অভিনেত্রী ক্রিস্টেন বেল জানিয়েছেন, যত ক্ষণ না দুর্গন্ধ বেরোচ্ছে, তত ক্ষণ তিনি স্নান করেন না। অভিনেতা জ্যাক গিলেনহালও জানিয়েছেন, তিনি মনে করেন, অনেক মানুষই প্রত্যেক দিন স্নান করেন না। এবং সেটাই ত্বকের পক্ষে ভাল। প্রকৃতির স্বাভাবিক নিয়মে ত্বক পরিষ্কার হয়ে যাবে!

টুইটারে নেটাগরিকরা অবশ্য এ সব শুনে বিরক্তই হয়েছেন। অনেকেই পাল্টা টুইট করে জানিয়েছেন, খ্যাতনামীদের সামান্য পরিচ্ছন্ন বোধটুকু নেই। টুইটার অবশ্য দু’ভাগে বিভক্ত। অনেকেই ইদানীং মনে করেন, রোজ স্নান করলে ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা অনেক কমে যায়। তাতে ত্বকের ক্ষতিই বেশি হয়। বরং স্বাভাবিক নিয়মে ত্বক নিজের মতো পরিষ্কার হয়ে যায়।

বিশেষজ্ঞদের মত কী

২০২০ সালে ব্রিটেনে ২৫ শতাংশ মানুষ নাকি রোজ স্নান করা ছেড়ে দিয়েছিলেন। ২০২১ সালে সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে আমেরিকায়ও অতিমারিতে বহু মানুষ প্রত্যেক দিন স্নান করার অভ্যাস ত্যাগ করেছেন। লন্ডনের ত্বক চিকিৎসক ডেরেক ফিলিপের মতে, প্রত্যেক দিন এক বার করে স্নান করার নিয়ম সমাজে বহু দিন থেকেই রয়েছে। তাঁর কথায় ‘‘পরিবার বা বন্ধু-বান্ধবের মহলে সকলের সুনজরে থাকতে প্রাপ্তবয়স্করা এক বার করে প্রত্যেক দিন স্নান করেন। কিন্তু ত্বক তার স্বাভাবিক নিয়মেই নিজেকে পরিষ্কার করে। মৃত কোষ ঝেরে ফেলার জন্য স্ক্রাবিং করা যেতে পারে। তবে সেটা আবশ্যিক নয়।’’ মানে সহজ ভাষায় বলতে গেলে, রোজ স্নান করলে গায়ে দুর্গন্ধ হবে না এবং হয়তো একটু সতেজ লাগবে। কিন্তু প্রত্যেক দিন সাবান দিয়ে স্ক্রাব করার কোনও প্রয়োজন নেই। এতে আপনি বেশি পরিষ্কার হয়ে যাবেন না।

রোজ স্নান করলে কী ক্ষতি হতে পারে? নিউ ইয়র্কের ত্বক চিকিৎসক আদর্শ মুদগিল এ বিষয়ে বলেছেন, ‘‘রোজ স্নান করার পর ময়েশ্চারাইজার বা তেল না লাগালে ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। কিন্তু এর চেয়ে বেশি কোনও রকম ক্ষতি হওয়ার কোনও প্রমাণ এখনও পর্যন্ত গবেষণায় পাওয়া যায়নি।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

কাদের রোজ স্নান না করলেও চলবে

১। শিশু

২। যাঁদের স্পর্শকাতর ত্বক

৩। যাঁদের একজেমার মতো কোনও চর্মরোগ রয়েছে

৪। যাঁদের বাড়ি বসেই কাজ

কাদের রোজ স্নান করা আবশ্যিক

১। যাঁরা গরম এবং আর্দ্র জায়গায় থাকেন

২। যাঁরা নিয়মিত শরীরচর্চা করেন

৩। যাঁদের রোজকার কাজে শারীরিক পরিশ্রম হয়

৪। যে বাচ্চারা খুব নোংরা ঘাঁটে

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.