নিজেকে সার্বিক সুস্থ রাখা হোক বা ওবেসিটির সঙ্গে লড়াই, শরীরচর্চা কিন্তু অবশ্যকর্তব্য। কিন্তু এই আবশ্যিক কাজটি করতে গিয়ে কী কী ব্যায়াম বা শারীরিক কসরত করছেন, তার উপরেও নির্ভর করে কতখানি ক্যালোরি ঝরানো সম্ভব। সর্বদা সময়ও মেলে না আলাদা করে জিমে যাওয়ার। ব্যায়াম করার মতো অবসর খুঁজে পান না অনেকেই। আবার ওজন ও উচ্চতা অনুযায়ী, শরীরের বিভিন্ন অংশের মেদ ঝরানোর পরামর্শ দেন ফিটনেস বিশেষজ্ঞরা। তাই এক এক জনের ক্ষেত্রে এক একটা শারীরিক কসরতের উপর জোর দিয়ে থাকেন তাঁরা।

পেটের চর্বি, হাতের মেদ, পায়ের কোনও একটি বিশেষ অংশের ওজন কমানো এই সবের প্রতি নজর দিতে গিয়ে অনেককেই বিশেষ কোনও কসরত বা ব্যায়ামে মনোনিবেশ করতে হয়। তবে শরীরকে সক্রিয় রাখার এমন অনেক উপায় আছে, যা ওজন ও উচ্চতা নির্বিশেষ সকলের ক্ষেত্রেই খুবই কার্যকর।

শরীরের ক্যালোরি ঝরাতে এ সব অভ্যাস বিশেষ কার্যকর। আবার তার জন্য জিমে যাওয়ার বা আলাদা করে সময় বার করে শরীরচর্চা করারও প্রয়োজন পড়ে না। দেখে নিন প্রতি দিন কী কী অভ্যাসে সহজেই মেদকে দূরে রাখতে পারেন, তাও জিমে যাওয়া বা ব্যায়ামের শরণ না নিয়েই।

আরও পড়ুন: এই বসন্তে অসুখবিসুখ ঠেকাতে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পাতে রাখুন এ সব

 শরীর-সাস্থ্য নিয়ে এ সব তথ্য আগে জানতেন?

লাফদড়ির ব্যবহার ধরায় অতিরিক্ত মেদ।

স্কিপিং: লাফদড়ি কিনে ফেলুন আর প্রতি দিন একটু সময় বার করে স্কিপিং করুন। এতে শরীরের মেদ যেমন ঝরে, তেমন ক্যালোরি বার্ন করতেও এটা বিশেষ কার্যকর। টানা পনেরো মিনিট স্কিপিংয়ে প্রায় ২৬৯ ক্যালোরি ঝরে। খুব সহজে শরীরকে সক্রিয় রাখার জন্য এটি অন্যতম সেরা উপায়।

সাঁতার: সকাল-বিকেল সাঁতার কাটেন? তা হলে মেদ ঝরানোর জন্য অন্য কোনও ব্যায়াম বা জিমের কসরত আপনার না করলেও চলে। ভারী ওজনের মানুষ হলে, এক ঘণ্টা সাঁতারে শরীর প্রায় ৮৯২ ক্যালোরি বার্ন করে। পেশীকে শক্ত করতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও শরীরকে চনমনে রাখতে সাঁতার খুবই উপযোগী।

সিঁড়ি ভাঙা: ব্যায়াম, শরীরচর্চার সময় নেই, কিন্তু সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস আছে তো? তা হলে অনেকটাই বিপন্মুক্ত। সারা দিনে আধ ঘণ্টা সিঁড়ি ভাঙতে পারলে প্রায় ৪১০ ক্যালোরি পর্যন্ত ঝরে। অফিসের ফাঁকে তাই লিফ‌্ট না ব্যবহার করে চেষ্টা করুন সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস আয়ত্তে আনতে। যাতায়াতের পথে ফুটব্রিজ বা রেলব্রিজ ব্যবহার করুন, রাস্তা পেরনো বা লাইন টপকে যাওয়ার বিপদও এতে এড়ানো যায় আবার খানিকটা শরীরচর্চাও হয়ে যায়।

আরও পড়ুন: রান্না করা সব্জি না কি তার রস, কোনটা খেলে বিপদ বাড়ছে জানেন?

টেনিস বা ব্যাডমিন্টনে ঝরিয়ে ফেলুন ক্যালোরি। 

খেলাধূলা: দৌড়াদৌড়ি হয় এমন কোনও খেলার সঙ্গে যুক্ত থাকুন। টেনিস, ব্যাডমিন্টন, বাস্কেটবল এমন কোনও খেলা প্রায় আধ ঘণ্টা বা চল্লিশ মিনিট ধরে অভ্যাস রাখতে পারলে প্রায় ৪০০ ক্যালোরি পর্যন্ত ক্যালোরি বার্ন হয়।

জগিং: হাঁটাহাঁটির জন্য কিছুটা সময় বার করতে পেরেছেন? বেশ তো, এ বার শুধু গতিটা বাড়িয়ে তাকে জগিংয়ে নিয়ে যান। আধ ঘণ্টা জগিংয়ে প্রায় ৩৭৫ ক্যালোরি বার্ন হয়। রোজের রুটিনে অন্য কোনও সক্রিয়তার চেয়ে জগিং করাটা অনেক সহজও। তাই ফিট থাকতে এই অভ্যাস আয়ত্ত করতে পারলে আখেরে লাভ আপনার।