Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Hrithik Roshan

বছরের শুরুতেই নতুন কলেবরে হৃতিক রোশন, নিজেই নিজের ছবি তুলে চমক দিলেন অনুরাগীদের

নতুন বছরের শুরুতে নতুন চমক দেওয়ার রীতি সব মহলেই আছে। তারকারাও তার ব্যতিক্রম নন। অনুরাগীরাও সেই চমক দেখার জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। বছরের শুরুতেই এ কেমন চমক নিয়ে ধরা দিলেন হৃতিক?

নতুন বছরে হৃতিকের নয়া ‘ধুম’।

নতুন বছরে হৃতিকের নয়া ‘ধুম’। ছবি- সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০২ জানুয়ারি ২০২৩ ১৪:৪২
Share: Save:

বছরের শুরুতেই যে প্রিয় তারকার থেকে এমন চমক পাবেন, তা আশাও করতে পারেননি অনুরাগীরা। সমাজমাধ্যমে নিজের ‘রিপড লুক’-এর নতুন ছবি পোস্ট করে রীতিমতো ঝড় তুলে দিয়েছেন হৃতিক রোশন। কালো জিমের পোশাকের আড়ালে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে তাঁর ‘সিক্স প্যাক’। মেদের চিহ্নমাত্র নেই। উল্টে শরীরের প্রতিটি ভাঁজে ফুটে উঠেছে শারীরিক কসরতের কারুকাজ।

জিমের আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে, নিজের ফোনের ক্যামেরাতেই নয়া কলেবরের ছবি তুলছেন তিনি। পিছনে সাজানো রয়েছে জিম করার নানা রকম যন্ত্রপাতি। জিম থেকেই এমন হাতে গরম ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, “ঠিক আছে। চলো শুরু করা যাক।”

ছবি পোস্ট করা মাত্রই অনুরাগীদের মন্তব্য উপচে পড়েছে। বাদ যাননি তাঁর সিনেমা জগতের সহকর্মীরাও। হৃতিকের মন্তব্যের সমর্থনে অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান লিখেছেন, “তবে তা-ই হোক”।

‘ফিটনেস’-এর বিষয়ে কথা বলতে গেলে বলিউডের অভিনেতাদের মধ্যে প্রথম সারিতে রয়েছেন হৃত্বিক। তাঁর ‘ফিটনেস রেজ়িম’ অনেকের কাছেই অনুপ্রেরণা। ২০০০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ থেকে ‘বিক্রম বেদা’— মাঝে কেটে গিয়েছে ২২ বছর। চরিত্রের প্রয়োজনে নানা ভাবে নিজের চেহারায় বদল এনেছেন তিনি। এ বার ‘ফাইটার’ ছবিতে দীপিকা পাড়ুকোনের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে তাঁকে। দেহের এই পরিবর্তন হৃতিকের আগামী ছবির প্রস্তুতি পর্ব বলেই মনে করছেন অনুরাগীদের একাংশ।

প্রসঙ্গত, বড়দিন উপলক্ষে হৃতিক তাঁর দুই পুত্র, ভাই ঈশান, বোন পশমিনা এবং বান্ধবী সাবা আজ়াদকে নিয়ে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন ফ্রান্সে। তাঁর নিজের সমাজমাধ্যমে বরফাবৃত আল্পস পর্বতে সপরিবার তুষারপাতের ছবি পোস্ট করে সেখান থেকেই অনুরাগীদের বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE