প্রতি দিনের ব্যস্ততার মাঝে নিজের ত্বকের কথা ভাবার সময় থাকে না প্রায় অনেকের হাতেই। কেউ বা সারা দিনের কাজের পর নিয়মরক্ষার যত্নটুকু করেই ক্ষান্ত হন। কিন্তু ত্বকের জেল্লা ধরে রাখতে ও ত্বককে স্বাস্থ্যকর করে তুলতে কিছু উপায় অবলম্বন করতে হয় বইকি!

হাতে সময় কম থাকলে এমন কিছু কৌশল অবলম্বন করুন, যার প্রভাবে কম সময় ও শ্রমে ত্বকের সমস্যাকে জয় করা যায় সহজেই।

নামমাত্র খরচে ওটসের মাধ্যমেই পেতে পারেন এমন এক সমাধান, যা শুধু ত্বককে আর্দ্রতা এনে দেবে তা-ই নয়, বরং ত্বক পরিষ্কার থেকে শুরু করে ত্বকে ভিটামিন ও খনিজের জোগানও দেয়। কী কী ভাবে কাজে আসবে ওটসের প্যাক? বানাবেন কী ভাবে?

আরও পড়ুন: বাদাম খান এই ভাবে, রোগাও হবেন, পুষ্টিও থাকবে ভরপুর

ওটসের সঙ্গে মিশিয়ে নিন হাতের কাছেই মেলে এমন উপাদান, আর তা দিয়েই জেল্লা বাড়ান ত্বকের।

  • কয়েক মুঠো ওটসকে ব্লেন্ডারে গুঁড়ো করে নিন। এ বার এতে খানিকটা উষ্ণ জল যোগ করে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এতে মধু মিশিয়ে এই প্যাককে ভাল করে ঘষুন ত্বকে। স্ক্রাবিংয়ের কাজ করবে এটি। মধুর প্রাকৃতিক ভাবেই ময়শ্চারাইজারের কাজ করে। এর সঙ্গে ওটস যোগ হলে তা ত্বকের মৃত কোষ ঝরিয়ে দেয়, রোমকূপ খুলে ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করে।
  • এক চামচ টক দইয়ের সঙ্গে এক চামচ গুঁড়ো ওটসের মিশ্রণ কিছু ক্ষণের জন্য মুখে লাগিয়ে রাখলে সহজেই ত্বক জেল্লাদার হয়। কোনও পার্টি বা নিমন্ত্রণবাড়ি যাওয়ার সময় মেক আপের আগে এই প্যাক লাগিয়ে রাখুন। তার পর মুখ ধুয়ে মেক আপ করুন। এতে মেক আপ বসবে ভাল আর থাকবেও অনেক ক্ষণ।

আরও পড়ুন: অনিদ্রার শিকার? ওষুধ ছাড়াই ঘুমোন এই পানীয়গুলির সাহায্যে

  • যাঁরা বাড়িতেই ঘরোয়া উপায়ে ব্লিচ করতে পছন্দ করেন, তাদের জন্যও ওটস অব্যর্থ বিকল্প। কয়েক চামচ ওটস গুঁড়োর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ও আধ খানা পাকা কলা মিশিয়ে সারা মুখে হাতের তালু দিয়ে মাসাজ করুন। মাসাজ সব সময় ত্বকের নীচের দিক থেকে উপরের দিকে হবে। ব্লিচের ফল সহজই মিলবে এতে।
  • খুব ব্রণ হয়? এই সমস্যার সমাধানও লুকিয়ে ওটসে। ওটস মিহি করে গুঁড়িয়ে তাতে সামান্য চন্দনগুঁড়ো ওকয়েক ফোঁটা গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এ বার এই মিশ্রণ সরাসরি ব্রণর উপর লাগালে ব্রণর লাল ভাব কমে ব্যথাও কমে। ব্রণ দ্রুত শুকোয়। এতে মুখের ওয়াক্সিংয়ের কাজও সহজেই হবে।