• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রবল প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা, সতর্কবার্তা জারি ১৩ রাজ্যে

Dust Storm
আঁধার: বিকানেরে ধুলোঝড়। সোমবার। ছবি: পিটিআই।

Advertisement

ফের প্রবল প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আশঙ্কা উত্তর ও পূর্ব ভারতের ২০টি রাজ্যে। ধুলোর ঝড় ও মেঘভাঙা বৃষ্টিতে গত সপ্তাহেই রাজস্থান ও উত্তরপ্রদেশে প্রাণ হারিয়েছেন শতাধিক মানুষ। অত বড় মাত্রায় না হলেও ফের উত্তর ও পূর্বে ঝড়বৃষ্টির আশঙ্কা করছে আবহাওয়া মন্ত্রক। ইতিমধ্যেই মধ্যপ্রদেশের পোরসা শহরে দু’টি আলাদা জায়গায় বাড়ি চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে একটি শিশু ও এক মহিলার। উত্তরপ্রদেশের মৈনপুরীতে গাছ পড়ে মারা গিয়েছে ১১ বছরের একটি মেয়ে।

রবিবার রাতেই আগামী দু’দিনের জন্য হরিয়ানায় ৩৫০টি বেসরকারি স্কুল ও ৫৭৫টি সরকারি স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা দফতর। নির্দেশিকা জারি করে ঝড়বৃষ্টির সময় সবাইকে বাড়িতে থাকার আর্জি জানিয়েছে সরকার। বিপদ এড়াতে গাছের তলায় দাঁড়াতে নিষেধ করা হয়েছে বাসিন্দাদের। বৃষ্টির হাত থেকে শস্য বাঁচানোর জন্য সাবধান থাকতে বলা হয়েছে কৃযকদের। বিপর্যয় মোকাবিলায় প্রস্তুত দিল্লিও। বেশি রাতে সেখানে ঝড় আছড়ে পড়েছে। কাল সেখানে দুপুরের স্কুলগুলি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলায় জেলায় উদ্ধারকারী দলকে তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

সোমবার সকাল থেকেই হিমাচলপ্রদেশের বেশ কিছু অঞ্চলে হাল্কা তুষারপাত হয়। কোনও কোনও জায়গায় বৃষ্টিও হয়েছে। বুধবার পর্যন্ত আরও কয়েক দফা তুষারঝড় ও বরফপাতের আশঙ্কা রয়েছে সেখানে। এ ছাড়াও, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, সিকিম, ওডিশা, অসম, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরা, কর্নাটক ও কেরলে ঝড়বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর।

আজ ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার বেগে বায়ুপ্রবাহে উত্তরপ্রদেশে ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়ে মৈনপুরী, ফিরোজাবাদ, মথুরার মতো অঞ্চলগুলি। আগ্রাতে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় প্রবল বেগে ঝোড়ো হাওয়া ও ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা জারি হয়েছে। আগ্রার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৮ ডিগ্রির আশপাশে ঘোরাফেরা করে এ দিন। বিপর্যয় থেকে বাঁচতে
কী করতে হবে, না-হবে সে বিষয়ে নির্দেশিকা জারি করেছেন জেলাশাসক গৌরব দয়াল।

সতর্ক করা হয়েছে রাজস্থানকেও। আজ সকালে বিক্ষিপ্ত ভাবে কয়েকটি জায়গায় ধুলোঝড় হয়। বিকানেরে আগামী তিন দিন অর্থাৎ বুধবার পর্যন্ত মরুঝড়ের আশঙ্কা রয়েছে।

তাপমাত্রা অনেকটা বেড়ে যাওয়ায় উত্তরপ্রদেশে মন্দিরগুলিতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র বসানোর দাবি তুলেছেন ভক্তরা। কানপুরে এর মধ্যেই বেশ কিছু মন্দিরে কুলার ও এসি বসানো হয়েছে।        

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন