• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এসপি-র অফিসের সামনে চেষ্টা আত্মহত্যার

victim
প্রতীকী ছবি।

Advertisement

ফের উন্নাও। ধর্ষণে সুবিচারের দাবিতে এ বার পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন বছর তেইশের এক তরুণী। পুলিশের তরফে তদন্তে গড়িমসির অভিযোগ ছিলই। পরিবারের দাবি, অভিযুক্ত সম্প্রতি আগাম জামিন পাওয়ার পর থেকেই অবসাদে ভুগছিলেন ওই তরুণী। সোমবার নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন তিনি। সেই অবস্থাতেই এসপি-র দফতরে ঢোকার চেষ্টা করেন। দ্রুত আগুন নিভিয়ে তাঁকে পাঠানো হয় জেলা হাসপাতালে। পরে সেখান থেকে কানপুরের হাসপাতালে। 

পুলিশ জানিয়েছে, শরীরের ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে ওই তরুণীর। বাহুবলী বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গারের বিরুদ্ধে পুলিশ অভিযোগ নিচ্ছে না দেখে ২০১৮-র এপ্রিলে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বাড়ির সামনে এ ভাবেই আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন উন্নাওয়ের সদ্য বিচার পাওয়া ধর্ষিতা।

উন্নাওয়ের এসপি বিক্রান্ত বীর জানিয়েছেন, তাঁর অফিসের সামনে আত্মহত্যার চেষ্টা করা ওই তরুণীর বাড়ি উন্নাও জেলার হসনগঞ্জ থানা এলাকার একটি গ্রামে। তাঁকে বিয়ের মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়ে লাগাতার ধর্ষণ করা হয়েছে বলে ২ অক্টোবর অবধেশ সিংহ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছিলেন ওই তরুণী। পুলিশের দাবি, ওই যুবক ও তরুণী পরস্পরকে ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিনতেন। কিন্তু অবধেশ বিয়ে করতে অস্বীকার করার পরেই থানার দ্বারস্থ হন ওই তরুণী। অভিযোগ, এফআইআর তুলে নেওয়ার জন্যও তরুণীর উপর ধারাবাহিক চাপ দেওয়া হচ্ছিল। 

এখন কানপুরের হাসপাতালেই ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ওই তরুণীর জবানবন্দি নেওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ। হেফাজতে নিয়ে জেরা করা হচ্ছে অভিযুক্তকেও।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন