• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

স্কুল ভ্যানে দগ্ধ ৪ শিশু

school van
প্রতীকী চিত্র।

স্কুল থেকে ফেরার পথে গাড়ির ভিতরেই জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত্যু হল চার শিশুর। তাদের মধ্যে বছর তিনেকের একটি মেয়েও রয়েছে। বাকিদের বয়স ১০ থেকে ১২-র মধ্যে। শনিবার পঞ্জাবের সঙ্গরুর জেলার কাছে লঙ্গোয়াল-সিদসমাচার রোডের উপরে দুর্ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানায়, শনিবার স্কুল থেকে ১২টি শিশুকে নিয়ে ফিরছিল মিনি ভ্যানটি। হঠাৎই গাড়িটিতে আগুন ধরে যায়। গাড়িটিকে জ্বলতে দেখে আশপাশের খেত থেকে ছুটে আসেন অনেকেই। তাদের তৎপরতায় কোনও মতে উদ্ধার করা হয় আটটি শিশুকে। তবে বাঁচানো যায়নি ওই চার জনকে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাদের। প্রাথমিক ভাবে জখমদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবশ্য তাদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি। ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিংহ। টুইটারে দোষীদের কড়া শাস্তির নির্দেশও দিয়েছেন।  ঘটনাস্থলে ঘুরে সঙ্গরুর ডেপুটি কমিশনার ঘনশ্যাম তোরি জানান, প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, ভ্যানটির অবস্থা ভাল ছিল না। তার উপরে বেআইনি ভাবে গাড়িটি চালানো হচ্ছিল বলেও জানতে পেরেছে পুলিশ। দুর্ঘটনার পরেই ঘটনাস্থল ছেড়ে পালিয়ে যায় গাড়ির চালক।

ঘটনায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৩ ধারায় মামলা দায়ের করে পুলিশ। যদিও সঙ্গরুর বিধায়ক ও আপ নেতা ভগবন্ত মান ঘটনাস্থল ঘুরে দেখে স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করার দাবি জানান। তার মতে, অচল জেনেও ১৯৯০ সালের ওই ভ্যান-মডেলটি ব্যবহারের অনুমতি দেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। পঞ্জাবের শিক্ষামন্ত্রী ও সঙ্গরুর বিধায়ক বিজয় ইন্দ্র সিঙ্গলা মৃতদের পরিবারকে ৫ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন।               

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন