• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

৪১ হাজার আক্রান্ত, উদ্বিগ্ন নন হিমন্ত

desh
ফাইল চিত্র।

অসমে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ হাজার পার করে ফেলল। গত কাল ৪ জন কোভিডে মারা গিয়েছিলেন। আজ আরও ৩ জনের মৃত্যুর কথা টুইট করেছেন হিমন্তবিশ্ব শর্মা৷ অসমে কোভিডে মৃত্যু বেড়ে হয়েছে ১০১৷ একে অবশ্য খুব উদ্বেগের বলে মনে করছেন না রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত৷ তাঁর বক্তব্য, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে৷ গুয়াহাটিতে সংক্রমণ কমে আসছে৷ তিনি আশাবাদী, ৩১ অগস্টের মধ্যে অবস্থার আরও উন্নতি ঘটবে৷

সব মিলিয়ে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪১,৭২৬ জন। গত কাল পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৩০,৩৫৭ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ১১,২৬৫ জন। সুস্থতার হার ৭৫.৪ শতাংশ।

এই অবস্থায় আনলক-৩ ধীরে ধীরে প্রয়োগের পক্ষপাতী অসম সরকার৷ এখনই নৈশ কার্ফু তোলা হচ্ছে না৷ সন্ধ্যা ৬টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত কার্ফু চলবে৷ জুলাই মাসে রাজ্যে আন্তঃজেলা যাতায়াত বন্ধ ছিল৷ এখন সপ্তাহে সোম ও মঙ্গলবারের জন্য তা খুলে দেওয়া হবে৷ তবে সাপ্তাহিক হাট-বাজার বন্ধই থাকবে৷

স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ দিন বিরোধীদের একহাত নেন৷ এরা বেশি দামে পিপিই কিট কেনার অভিযোগ এনেছিলেন হিমন্তের বিরুদ্ধে৷ কেন্দ্রের কাছ থেকে টাকা এনে অপরিকল্পিত ব্যয়েরও অভিযোগ রয়েছে৷ হিমন্ত জানান, অসমই সবচেয়ে কম দামে পিপিই কিট কিনতে সমর্থ হয়েছে৷ টেন্ডার ডাকা হলে সর্বনিম্ন দর এসেছিল ৩২০০ টাকা৷ তা খারিজ করে তিনি নিজে দরদাম শুরু করেন৷ তাতে গড়ে প্রতিটি পিপিই কিটের দাম পড়েছে সর্বোচ্চ ১১০০ টাকা৷

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈয়ের উদ্দেশে হিমন্তের প্রশ্ন, করোনা মোকাবিলায় এক দিনও কি কাউকে মাস্ক পরার কথা বলেছেন তিনি? কোনও দিন প্লাজ়মা দানের ব্যাপারে  আবেদন জানিয়েছেন কি? বিরোধী নেতাদের দিকে পাল্টা অভিযোগের আঙুল তুলে হিমন্ত বলেন, “এঁদের এক জনও কি আরোগ্য তহবিলে একটি টাকা দিয়েছেন?”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন