• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আন্দোলনে নিহত ২ কিশোরকে ‘শহিদ’ তকমা আসু-র

Family members grieve the death of son in Assam
ছবি: পিটিআই।

এক জন মায়ের নিষেধ না-মেনে বিক্ষোভে যোগ দিতে গিয়েছিল। অন্য জন সমাবেশ থেকে ফেরার সময় মাকে সাবধান করেছিল। দুই ছেলেই আর ঘরে ফিরল না। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নিহত ১৭ বছরের দুই কিশোরকে ‘শহিদ’ ঘোষণা করল আসু। 

গুয়াহাটির হাতিগাঁওয়ের বাসিন্দা নবম শ্রেণির ছাত্র স্যাম স্ট্যাফোর্ড বৃহস্পতিবার লতাশিলের মাঠের সমাবেশে যোগ দিতে গিয়েছিল বন্ধুদের সঙ্গে। তার মা জানান, হেঁটে ফেরার সময়ে বাড়ির কাছেই রাজধানী মসজিদের সামনে গন্ডগোল দেখে ছেলে তাঁকে ফোন করে বলে, ‘‘বাইরে বেরিয়ো না। খুব ঝামেলা হচ্ছে। প্রায় পৌঁছে গিয়েছি। আমার জন্য পোলাও আর মাংস করে রাখ।’’ তার মিনিট দশেকের মধ্যে ফোন আসে, শঙ্কর পথে ছেলের গলায় গুলি লেগেছে। হাসপাতালের পথে রাস্তাতেই মারা গিয়েছে স্যাম।

গুয়াহাটির সৈনিক ভবনে কাজ করা ছয়গাঁওয়ের দীপাঞ্জল দাস বৃহস্পতিবার সকালেই মাকে ফোন করে বিক্ষোভে যোগ দেওয়ার কথা জানায়। মা কবিতা দাস জানান, ছেলেকে গন্ডগোলের মধ্যে যেতে নিষেধ করেছিলেন তিনি। কিন্তু অনড় দীপাঞ্জলের যুক্তি ছিল, প্রতিবাদে শামিল হওয়া তার নৈতিক দায়িত্ব। লতাশিলের সমাবেশ থেকে ফেরার সময়ে আচমকা একটি গুলি তার তলপেটে এসে লাগে। 

আরও পড়ুন: শিথিল কার্ফু, আপাত স্বাভাবিক অসমে বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা

পুলিশের গুলি থেকে বাঁচেনি হাসপাতালও। গুয়াহাটির একটি বেসরকারি হাসপাতাল সূ্ত্রে জানানো হয়, গণেশগুড়ি সেতুর সামনে বিক্ষোভ চলার সময় পুলিশ শূন্যে গুলি ছুড়ছিল। তখনই দু’টি গুলি হাসপাতালের আইসিইউয়ের জানলা ভেদ করে দেওয়ালে এসে লাগে। 

রাজ্যের পরিস্থিতি আজ অনেকটা স্বাভাবিক হলেও ইন্টারনেটের উপরে নিষেধাজ্ঞা সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। বাতিল হয়েছে রবিবারের ইউজিসি নেট পরীক্ষা। পরীক্ষা হবে না মেঘালয়েও। অসমে আজ বিকেল চারটে পর্যন্ত কার্ফু শিথিল হওয়ায় পেট্রল পাম্পগুলি খোলে। ছিল দীর্ঘ লাইন। কাল থেকে কার্ফু তুলে নেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা। তবে আজও গুয়াহাটির পশু চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ে চলে সত্যাগ্রহ, অনশন। বিক্ষোভ চলেছে রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে। গুয়াহাটি, ডিমাপুর-সহ বিভিন্ন স্টেশনে গত কয়েকদিনে আটকে পড়েছেন বহু যাত্রী। উজানি অসমে যাওয়া সব ট্রেন বাতিল হওয়ায় তিনসুকিয়া, ডিব্রুগড়ে থাকা বহু যাত্রী তিন-চারদিন ধরে স্টেশনেই আটকে রয়েছেন। তাঁদের গন্তব্যে পৌঁছনোর ব্যবস্থা করছে রেল কর্তৃপক্ষ।

এর মধ্যেই হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে আলোচনাপন্থী আলফা নেতা জিতেন দত্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সূত্রের খবর, ধৃত কৃষক নেতা অখিল গগৈয়ের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা রুজু করতে পারে এনআইএ। এ দিকে, ডিজিপি ভাস্করজ্যোতি মহন্ত আজ জানান, এখনও পর্যন্ত ৮৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আটক সহস্রাধিক। মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বলেন, আন্দোলনের নামে যারা আতঙ্ক ছড়াচ্ছে, সম্পত্তি নষ্ট করছে, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্য দিকে, নয়া আইনকে চ্যালেঞ্জ করে কংগ্রেস সাংসদ আব্দুল খালেক, বিরোধী দলনেতা দেবব্রত শইকিয়ারা আজ সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেছেন। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন