সরকারি অফিসারদের দুর্নীতি রুখতে ফের কড়া ব্যবস্থা নিল কেন্দ্রীয় সরকার। ফের শাস্তির খাঁড়া নামল আয়কর দফতরের ১৫ জন সিনিয়র অফিসারের ঘাড়ে। তাঁদের বাধ্য করা হল অবসর নিতে। তাঁদের মধ্যে অনেকেই কমিশনার বা তারও উপরের পদে। গত সপ্তাহেই দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে, আয়কর দফতরের এমন ১২ জন অফিসারকে অবসর নিতে বাধ্য করানো হয়েছিল।

একটি সরকারি বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, এ দিন যে ১৫ জন আয়কর-কর্তার উপর শাস্তির খাঁড়া নেমেছে, তাঁদের মধ্যে ১১ জনের বিরুদ্ধে থাকা দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করছে সিবিআই। দু'জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা করেছে কেন্দ্রীয় রাজস্ব মন্ত্রক।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে শাস্তিপ্রাপ্ত আয়কর-কর্তাদের নামধামও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। তালিকায় সবচেয়ে প্রথমে নাম রয়েছে প্রিন্সিপাল কমিশনার অনুপ শ্রীবাস্তবের। তাঁর বিরুদ্ধে সিবিআই দু'টি মামলা করেছে। ঘুষ নেওয়া ও অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের। তা ছাড়াও কর্মীদের হেনস্থা, তোলাবাজি, আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তি ও সরকারি ফ্ল্যাট আগলে রাখারও অভিযোগ রয়েছে। কমিশনার অতুল শ্রীবাস্তবের বিরুদ্ধেও সিবিআইয়ের দু'টি মামলা রয়েছে। জালিয়াতি ও আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তির।

আরও পড়ুন- বিলিয়নেয়ার ক্লাব থেকে ছিটকে গেলেন অনিল অম্বানী, হাতছাড়া হওয়ার জোগাড় সাম্রাজ্য​

আরও পড়ুন- ধার ফেরতে ভরসা দেউলিয়া আইনেই​

কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফে এ দিন একের পর এক টুইটে শাস্তিপ্রাপ্ত আয়কর-কর্তাদের নামধাম জানিয়ে বলা হয়েছে, "অবসর নেওয়ার সময় ১৫ জন অফিসারকেই তাঁদের আগামী তিন মাসের বেতন ও ভাতা দিয়ে দেওয়া হবে।"

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের করা বার্ষিক সমীক্ষায় বিশ্বে দুর্নীতির সূচকে গত বছর ভারতের পারফরম্যান্স কিছুটা ভাল হয়েছিল। তার আগের বছরে ১৮০টি দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ছিল ৮১তম। সূচকের পরিবর্তনে তা গত বছরে ভারতের স্থান হয়েছিল ৭৮তম।