যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে আরএসএস-বিরোধী বিক্ষোভের আঁচ পৌঁছল শিলচরেও। গত শনিবার যাদবপুরে ইউএসডিএফ সদস্য দেবপ্রিয় সোম বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের নিয়ে এক আলোচনাসভায় সঙ্ঘ-বিরোধী পোস্টার লাগাতে গিয়ে ‘আক্রান্ত’ হয়েছিলেন বলে অভিযোগ। মঙ্গলবার রাতে শিলচরের কলেজ রোডে দেবপ্রিয়র আবাসনের সামনে বিক্ষোভ দেখাল হিন্দু সংহতি।

আরও পড়ুন

৪৫ মিনিট ধরে বন্ধ হৃদ্‌স্পন্দন, তা-ও বেঁচে উঠল তিন মাসের শিশু

ওই সংগঠনের বক্তব্য, যাদবপুরে আরএসএস-বিরোধী পোস্টার লাগানোর নেতৃত্ব দেন দেবপ্রিয়। শিলচরের ওই আবাসনে থাকেন তাঁর মা-বাবা। কলকাতায় পড়তে গিয়ে ছেলে যে দেশদ্রোহী হয়ে উঠেছেন, সেটাই নাকি তাঁরা জানাতে গিয়েছেন।

দেবপ্রিয়র বাবা দীপঙ্কর সোম করিমগঞ্জে শিক্ষকতা করেন। মা কমলিকা নাগ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। হিন্দু সংহতির বিক্ষোভের সময় তাঁরা বাড়িতে ছিলেন না। আবাসনে ছিলেন দেবপ্রিয়র ঠাকুমা। জনাপঞ্চাশ যুবক আবাসনের প্রবেশপথে দাঁড়িয়ে বিক্ষোভ দেখান। স্লোগান দেন— ‘দেশদ্রোহী দেবপ্রিয়কে শিলচরে ঢুকতে দিচ্ছি না, দেব না।’

দেবপ্রিয়র সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও, তাঁর ফোন ‘সুইচড্‌ অফ’ ছিল। মা কমলিকাদেবী বলেন, ‘‘উচ্চমাধ্যমিক পাশের পরই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়ে পড়ার সুযোগ পেয়েছে। ৬ মাস হল সেখানে গিয়েছে। তার কোনও আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।’’