সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের আসা নিয়ে বিভক্ত আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের (এএমইউ) পড়ুয়ারা।

আগামিকাল এএমইউ-এর সমাবর্তনে যাওয়ার কথা রাষ্ট্রপতির। কিন্তু এএমইউ স্টুডেন্টস ইউনিয়নের একাংশের দাবি, বিজেপি মুখপাত্র হিসেবে রামনাথের ইসলাম ও খ্রিস্টধর্ম নিয়ে আপত্তিকর কথা বলেছিলেন কোবিন্দ। ছাত্র ইউনিয়নের সহ-সভাপতি সাজাদ শুভেন রাঠেরের কথায়, ‘‘ক্ষমা না চাইলে রাষ্ট্রপতি ক্যাম্পাসে স্বাগত নন। আপত্তি সত্ত্বেও তিনি এলে গোলমাল হতে পারে। তার দায়িত্ব রাষ্ট্রপতি ও উপাচার্যকে নিতে হবে।’’ তাঁর দাবি, ‘ব্যক্তিগত স্বার্থে’ই রাষ্ট্রপতিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন উপাচার্য তারিক মনসুর। তিনি বোঝাতে চান, এএমইউ বিজেপির মতাদর্শকে গ্রহণ করেছে।

তবে সব পড়ুয়া এত চরম মনোভাব নিতে রাজি নন। ইউনিয়নের সভাপতি মকসুর আহমেদ উসমানির মতে, ‘‘রাষ্ট্রপতি স্বাগত। কিন্তু তাঁর সঙ্গে এসে কেউ সঙ্ঘের মতাদর্শ ছড়াতে চাইলে প্রতিবাদ করা হবে।’’

মুসলিম ইউথ অ্যাসোসিয়েশন আবার রাষ্ট্রপতিকে গেরুয়া পতাকা নিয়ে স্বাগত জানানোর হুমকি দিয়েছে। তাদের দাবি, রাষ্ট্রপতির সফরের যাঁরা বিরোধিতা করছেন তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। তা না হলে ইউথ অ্যাসোসিয়েশন ১১ হাজার ‘জাতীয়তাবাদী’ মুসলিমের মিছিল এনে রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানাবে। এএমইউ কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁরা কেবল রাষ্ট্রপতিকেই আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তাঁর সঙ্গী হিসেবে কেউ এলে বাধা দেওয়ার অধিকার তাঁদের নেই।