স্ত্রীর সঙ্গে রাগারাগি করে নিজের আটমাসের সন্তানকে বারংবার মাটিতে আছাড় মারলেন এক ব্যক্তি। সেই আঘাতে মৃত্যু হল আট মাসের শিশুটির। মঙ্গলবার রাতে এই ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের লখনউ জেলার নিগোহা গ্রামে। নিজের সন্তানকে আছড়ে মেরে ফেলায় অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির নাম সুরেন্দ্র সাউ।

ওই দিনের ঘটনার কথা পুলিশকে বিস্তারিত জানিয়েছেন সুরেন্দ্রর স্ত্রী লক্ষ্ণী। তিনি জানিয়েছেন স্বভাবে সুরেন্দ্র ভীষণ বদমেজাজি। গত মঙ্গলবার রাতেসুরেন্দ্র বাড়ি ফিরলে দরজা খুলে দেন লক্ষ্ণী। দরজা খুলে তিনি চলে যান ঘরের ভিতর কিছু কাজের জন্য। তখনই জল না দেওয়ার জন্য তাঁর উপর চিৎকার শুরু করেন সুরেন্দ্র। তখনই খাটের উপর শুয়ে থাকা তাঁদের আট মাসের সন্তানকে ছুঁড়ে ফেলে দেন ঘরের এক কোণে। সঙ্গে সঙ্গে কেঁদে ওঠে বাচ্চাটি। বাচ্চার সেই কান্নায় আরও বিরক্তহয় সুরেন্দ্র। তার পর বারবার আছাড় মারতে থাকেন নিজের সন্তানকে।

 সে সময় লক্ষ্ণী সুরেন্দ্রকে আটকানোর চেষ্টা করলেও সফল হননি বলে জানিয়েছেন পুলিশকে। এই ঘটনার পর বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় সুরেন্দ্র। লক্ষ্ণী তখন শিশুটির চিকিৎসার জন্য প্রতিবেশীদের ডেকে আনেন।

আরও পড়ুন: কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশকে অপহরণ করে তিন মত্ত কী করল জানেন?

প্রতিবেশীদের থেকে খবর পেয়ে পুলিশ আসে। ঘটনার ঘণ্টা দু’য়েক পরই পুলিশ গ্রেফতার করে সুরেন্দ্রকে। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট অনুসারে, আঘাতের জেরে খুলি হাত পা ভেঙে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই শিশুর। নিগোহা পুলিশ স্টেশনের এক অফিসার বলেছেন, ‘‘নিজের আট মাসের সন্তানকে হত্যার অভিযোগে সুরেন্দ্র নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।’’ 

আরও পড়ুন: আইএএসে প্রথম ২০তে জায়গা করে নিলেন এই বিএসএফ অফিসার