আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে তেলঙ্গানায় কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন মহাজোটের আসন সমঝোতা চূড়ান্ত। ১১৯ সদস্যের বিধানসভায় কংগ্রেস লড়বে ৯০টি আসনে।  এমনটাই জানানো হয়েছে কংগ্রেসের তরফে ।  তেলঙ্গানার দায়িত্বে থাকা এআইসিসি সদস্য আর সি খুন্তিয়া জানিয়েছেন,   ‘‘আসন সমঝোতা চূড়ান্ত। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধীর অনুমোদন পেলেই সরকারি ভাবে তালিকা ঘোষণা করা হবে।’’

তেলঙ্গানায় কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন মহাজোটে আছে তেলুগু দেশম পার্টি (টিডিপি), তেলঙ্গানা জন সমিতি (টিজেএস) এবং সিপিআই।  মহাজোটের হয়ে ক’টি আসনে কংগ্রেস লড়বে তা জানানো না হলেও, সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর ৯০টি আসনে লড়ার কথা ভাবছে কংগ্রেস। সেক্ষেত্রে টিডিপি লড়বে ১৪-১৮টি আসনে। ১০টির মতো আসনে লড়বে টিজেএস এবং সিপিআই পাবে তিনটি আসন।

কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ছাড়া তেলঙ্গানায় বাকি দুই পক্ষ হল তেলঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি এবং বিজেপি।  অর্থাৎ ৭ ডিসেম্বর ত্রিমুখী লড়াইয়ের মুখোমুখি হতে চলেছে তেলঙ্গানা।

আরও পড়ুন: ছত্তীসগঢ়ে ভোটের আগেই ধাক্কা! দন্তেওয়াড়ায় বিস্ফোরণে বাস উড়িয়ে দিল মাওবাদীরা, নিহত ৫

তেলঙ্গানা ছাড়াও দক্ষিণে শক্তি বাড়াচ্ছে কংগ্রেস। কর্নাটকের সদ্যসমাপ্ত উপনির্বাচনে মিলেছে সেই ইঙ্গিত। কংগ্রেস ও জনতা দল সেকুলার (জেডিএস) জোটের কাছে রীতিমতো পর্যুদস্ত হয়েছে বিজেপি। সেই জোটকে আরও শক্তিশালী করতে জেডিএস সুপ্রিমো দেবগৌড়ার সঙ্গে বৈঠক করলেন তেলুগু দেশম সুপ্রিমো চন্দ্রবাবু নায়ডু। বিজেপি বিরোধী মহাজোট নিয়ে আলোচনা করতেই চন্দ্রবাবু নাইডু বেঙ্গালুরুতে এসেছেন বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের। চন্দ্রবাবু নায়ডু দেখা করেছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর সঙ্গেও।

আরও পড়ুন: সময়ের সঙ্গে প্রকট হচ্ছে নোটবন্দির ক্ষত, মোদীকে বিঁধলেন মনমোহন

সব মিলিয়ে দক্ষিণে নিজের বন্ধু বাড়াতে অনেকটাই সফল হয়েছেন রাহুল। জেডিএস এবং টিডিপি সেই মহাজোটের দুই স্তম্ভ বলা যেতেই পারে। চন্দ্রবাবু নায়ডুর নেতৃত্বেই চলছে জোট বাড়ানোর পরিকল্পনা। সারা দেশ জুড়েই বিজেপি বিরোধী জোট তৈরিতে উদ্যোগী হয়েছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। যদিও লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রাখলে বিজু জনতা দল, মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি বা তেলঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির কাছ থেকে এখনও সবুজ সংকেত পায়নি কংগ্রেস।

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)