• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নির্বাচন অফিসারকে দিল্লিতে তলব, বন্‌ধ স্থগিত মিজোরামে

mizo

নির্বাচন কমিশনের তিন প্রতিনিধির সঙ্গে আন্দোলনরত যৌথ মঞ্চ ও রাজ্যে সরকারের দফায় দফায় বৈঠকের পরে মিজোরামের মুখ্য নির্বাচনী অফিসার এস বি শশাঙ্ককে দিল্লিতে তলব করা হল। শশাঙ্ককে অপসারণের দাবি বিবেচনা করা, রিয়াংদের মিজোরামে ভোট দেওয়া ও স্বরাষ্ট্রসচিব লালনুনমাওইয়া চাউনগোর অপসারণের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার আশ্বাস মেলার পরে যৌথ মঞ্চ বন্‌ধ ও আন্দোলন স্থগিত রাখল।

দিল্লির নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, আপাতত শশাঙ্ককে ডেকে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগগুলির বিষয়ে জবাবদিহি করা হবে। যে কোনও মূল্যে মিজোরামে নির্বাচন করাটাই এখন কমিশনের অগ্রাধিকার। তবে শশাঙ্ককে আপাতত হয়তো সরানো হচ্ছে না।

শশাঙ্কের অভিযোগের ভিত্তিতে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র ও অর্থ দফতরের ভারপ্রাপ্ত সচিব চাউনগোকে ভোট না মেটা পর্যন্ত সরিয়ে দেয় নির্বাচন কমিশন। ভোটার তালিকায় রিয়াং শরণার্থীদের নাম তোলা নিয়েই দ্বন্দ্বের শুরু। চাউনগোকে সরানোয় ক্ষিপ্ত মিজোরামের সব সংগঠন যৌথ মঞ্চ গড়ে ৫ নভেম্বরের মধ্যে শশাঙ্ককে রাজ্য ছাড়ার হুমকি দেয়। তাদের ডাকে রাজ্যে বন্‌ধ শুরু হয়। রাজভবন ও শশাঙ্কের দফতরের সামনে চলছিল লাগাতার অবস্থান বিক্ষোভ। কয়েক হাজার প্রতিবাদকারী আইজলের রাস্তায় নামেন। রাজ্যে শাসক কংগ্রেসও যৌথ মঞ্চকে সমর্থন জানায়। কোনও প্রার্থীকে মনোনয়ন পত্রও জমা দিতে দেওয়া হচ্ছিল না।

পরিস্থিতি সামলাতে কালো পতাকা ও গো-ব্যাক ধ্বনির মধ্যেই নির্বাচন কমিশনের অধিকর্তা নিখিল কুমারের নেতৃত্বে তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল আইজলে আসেন। বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধি ও মুখ্যসচিবের সঙ্গে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয় তাঁদের। শেষ পর্যন্ত শশাঙ্ককে দিল্লিতে ডেকে পাঠানো হয়। ইয়ং মিজো অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তথা যৌথ মঞ্চের আহ্বায়ক ভানলালরুয়াতা জানান, তাঁদের দাবি দু’টি। শশাঙ্ককে সরাতে হবে এবং রিয়াংদের পোস্টাল ব্যালটে ভোট দিতে দেওয়া চলবে না। নিজের নিজের গ্রামে ফিরে এসে রিয়াংদের ভোট দিতে হবে। নির্বাচন কমিশন তাঁদের দাবি বিবেচনার আশ্বাস দেওয়ায় আপাতত আন্দোলন প্রত্যাহার করা হচ্ছে। দাবি না মানলে ফের আন্দোলন শুরুর হুঁশিয়ারি দিয়েছে যৌথ মঞ্চ।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন