অযোধ্যা মামলা নিয়ে বৃহস্পতিবার গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করল শীর্ষ আদালতের সাংবিধানিক বেঞ্চ। এ দিন মধ্যস্থতাকারী কমিটিকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত সময় দিল সুপ্রিম কোর্ট। ১ অগস্ট ওই কমিটিকে রিপোর্ট জমা দিতে বলেছে শীর্ষ আদালত। ২ অগস্ট থেকে শুরু হবে মামলার শুনানি।

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট অযোধ্যার জমি বিবাদ নিয়ে যে রায় দেয়, তার বিরুদ্ধে মোট ১১টি আবেদন জমা পড়ে সুপ্রিম কোর্টে। তার মধ্যে মধ্যস্থতার পক্ষে ছিল শুধুমাত্র সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ও নির্মোহী আখড়া। অযোধ্যার জমি বিবাদে মধ্যস্থতার জন্য গত বছরই একটি কমিটি তৈরি করে সুপ্রিম কোর্ট। তার প্রধান হিসেবে রয়েছেন শীর্ষ আদালতের প্রাক্তন বিচারপতি এফএম কলিফুল্লা। রয়েছেন আধ্যাত্মিক গুরু রবিশঙ্কর ও আইনজীবী শ্রীরাম পঞ্চু।

সেই মধ্যস্থতার কাজ কতদূর এগিয়েছে, তা জানতে গত ১১ জুলাই রিপোর্ট তলব করেছিল সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ। তখন শীর্ষ আদালত বলে, যদি মধ্যস্থতার প্রয়োজনীয়তা না থাকে, তা হলে ২৫ জুলাই থেকেই মামলার শুনানি শুরু হবে। তবে, এ দিন অবশ্য মধ্যস্থতা কমিটিকে বাড়তি ১৩ দিন সময় দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: বন্যাতেও প্রাণভোমরা এনআরসি নথি

সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চে এই মামলার শুনানি চলছে। প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ছাড়াও, এই বেঞ্চে রয়েছেন বিচারপতি এসএ বোবদে, বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, বিচারপতি অশোক ভূষণ এবং বিচারপতি আবদুল নাজির।

আরও পড়ুন: চুনির চোকার থেকে হিরের শেরপেচ, ভারতের রাজকীয় কোষাগারের অমূল্য অলঙ্কার আপনারও চোখ ধাঁধিয়ে দেবে